Tollywood

‘আমার বাড়িতে কি আমি আমার ছেলে বন্ধুকেও ডাকতে পারব না?’,অবশেষে পরকীয়ার অভিযোগ নিয়ে সুস্মিতার বিরুদ্ধে মুখ খুললেন উড়ন তুবড়ি সোহিনী ব্যানার্জি! ‘কে যে কার পিছনে লাগছে বোঝাই যাচ্ছে না’, কনফিউজড মানুষ

আজকে বিকালে একটা অভিযোগে তোলপাড় হয়ে গেছে সোশ্যাল মিডিয়া। সমস্ত সংবাদমাধ্যম একটি খবর করেছে বিকালবেলায় যার সূত্রপাত আজ থেকে একদিন আগে। সুস্মিতা পাল নামে এক বিখ্যাত মডেল গতকাল ফেসবুকে একটা বড়সড় পোস্ট করে এবং যার তীর ছিল সোহিনী ব্যানার্জীর দিকে।

সোহিনী ব্যানার্জি এখন টেলিভিশনের ভীষণ পরিচিত মুখ। জি বাংলার মোটামুটি জনপ্রিয় ধারাবাহিক উড়ন তুবড়িতে তিনি মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করছেন।এতদিন তার ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে খুব একটা কেউ জানতো না এবং তার সোশ্যাল মিডিয়াতেও খুব বেশি ফলোয়ার নেই। তার প্রেমিকের কথা অনেকেই জানেন এবং তার প্রেমিক জয়সূর্য গুপ্ত’র সঙ্গে তার ছবি রয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তবে সুস্মিতা অভিযোগ করেছিলেন যে তার স্বামী সন্দীপন পারিয়ালের সঙ্গে পরকীয়া করছে সোহিনী। তারা দুজনে একসঙ্গে খাচ্ছে ঘুরছে সিনেমা দেখছে। এই সবকিছু সুস্মিতার জীবনে অনেক অবসর ডেকে এনেছে এবং ফোন করলে নাকি কুকুরের মত ব্যবহার করা হচ্ছে তার সঙ্গে। তিনি এখন আত্মহত্যা করতে চান।

এই নিয়ে বিকাল থেকে সোহিনীর নামে নিন্দার ঝড় বয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়।এবার একটি সর্বভারতীয় বেসরকারি সংবাদমাধ্যমে মুখ খুললেন সোহিনী এবং স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন যে তাকে এবং সন্দীপনকে অপমান করার জন্যই এই কাজটা করেছেন সুস্মিতা। নায়িকার প্রশ্ন, ”পুরুষ বন্ধুকে বাড়িতে ডাকা নিষিদ্ধ বুঝি? সন্দীপন আমার খুব ভাল বন্ধু। শুধু আমি আর সন্দীপন না, আমাদের সঙ্গে আমার প্রেমিকও (জয়সূর্য গুপ্ত) সঙ্গে থাকে। আমরা তিন জনে নানা জায়গায় খেতে যাই, আড্ডা মারতে যাই। এমনকি সন্দীপন আমার বাড়িতেও এসেছে। বাকি বন্ধুদের মতোই। ছবিও দিই আমি। তা নিয়ে অনেক সমস্যা করেছিল সুস্মিতা। সন্দীপনের কথায় তাই আমি ছবি মুছেও দিয়েছি।”

তিনি জানাচ্ছেন যে এক বছর হয়ে গেল সুস্মিতা এবং সন্দীপনের মধ্যে ভালো সম্পর্ক নেই। সুস্মিতা সন্দীপনের কোন মেয়ে বন্ধুকেই সহ্য করতে পারেন না। তিনি সুস্মিতার কান্ডে একটু অবাক হচ্ছেন না।নিজের প্রেমিক সন্দীপন এবং সোহিনী এই ঘটনা নিয়ে একসঙ্গে আলোচনা করেছেন এবং বলছেন যে মাত্র এইটুকু করেই থেমে গেল সুস্মিতা?

সুস্মিতা নিজের পোস্টেই কিছু এমন মন্তব্য করেছেন পরে সেগুলো ডিলিট করে দিয়েছেন।সেখানে সুস্মিতা অন্য ছেলে বন্ধুদের সঙ্গে বাইরে খেতে যাওয়ার প্ল্যান করছেন। আবার হুমকি দিচ্ছেন যে সন্দীপন আর সোহিনীর নাম্বার পাবলিক করে দেবেন।যদিও সেগুলো সুস্মিতা পরে মুছে দিয়েছেন কিন্তু তার আগেই সোহিনী সেগুলোর স্ক্রিনশট তুলে রেখে দিয়েছেন প্রমাণ হিসেবে। সবমিলিয়ে জল অনেক দূর গড়িয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button