EntertainmentTollywood

কেকেকে আক্রমণ! জনরোষের চাপে রূপঙ্কর বাগচীর বিজ্ঞাপনী জিঙ্গল তুলে নিল Mio Amore

এই মুহূর্তে সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে একটাই নাম- রূপঙ্কর বাগচী। বলা যায় সময় ভীষণ খারাপ যাচ্ছে গায়ক রূপঙ্কর বাগচীর। বিশিষ্ট গায়ক কেকের মৃত্যুর পর থেকে এই তরজা আরো তুঙ্গে।

সংগীতশিল্পী কেক এর অকালপ্রয়াণ এবং রূপঙ্কর বাগচীর মন্তব্যকে ঘিরে ইতিমধ্যেই আলোচনায় উঠে এসেছে বিখ্যাত কেক প্রস্তুতকারী সংস্থা মিও আমোরে। কেনো? এর কারণ হলো এই কনফেকশনারী সংস্থার জিঙ্গল গেয়েছেন রূপঙ্কর বাগচী নিজে।

সোমবার রূপঙ্কর বাগচী কে কে কে কটাক্ষ করে যে লাইভ করেছিলেন সেটা যেন তাঁকে হাড়ে হাড়ে টের পাই দিচ্ছে “হু ইস কেকে”। ঠিক এই প্রশ্নটাই তিনি করে বসেছিলেন হাজার হাজার অনুরাগীকে লক্ষ্য করে। তারপর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে হইচই। খুব কম মানুষ রূপঙ্কর বাগচীর সমর্থনে এসেছে। তবে যারা তাকে সমর্থন করেছে তাদের বক্তব্য সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত অভিমান থেকে এই মন্তব্য করেছেন। তাঁর উদ্দেশ্য কেকেকে আক্রমণ করা বা অসম্মান করা ছিল না।

কিন্তু প্রয়াত গায়কের হাজার হাজার অনুরাগীরা সেটা শুনলে তো। কেকের মৃত্যুর পর রূপঙ্করকে নিয়ে আক্রমণ মাত্রা ছাড়ায়। এই নিয়েই রোষের মুখে পড়তে হয়েছে এই কনফেকশনারী সংস্থাকে।

তারপর তারা সিদ্ধান্ত নেয় ১ জুন রূপঙ্করের গাওয়া জিঙ্গলটি প্রত্যাহার করে নেওয়ার। মিও আমোরে মিও আমোরে এই গানটি বহু মানুষই শুনেছে। সেই নিয়ে বিতর্কের ঝড় উঠেছিল। কিন্তু সংস্থা সাথে-পাঁচে থাকতে চায় না। সেটাই তারা বুঝিয়ে দিলো এই সিদ্ধান্তের মাধ্যমে।

একজন নেটিজেন ফেসবুকে পোস্ট করে মিও আমোরেকে ট্যাগ করে লিখেছিলেন দয়া করে রূপঙ্কর বাগচীর গানটি ব্র্যান্ড থেকে সরিয়ে নিন না হলে এর প্রভাব পড়বে ব্রান্ডের উপর। বহু মানুষ আপনাদের ব্যান্ড ছেড়ে অন্য সংস্থা বেছে নেবে। ঠিক তারপরেই এই সিদ্ধান্ত নেয় সংস্থা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button