Entertainment

শেয়ার করেছিলেন পল্লবী দে’র মৃত্যুর খবর,তার দশ দিন পরেই টলিপাড়ার আরেক অভিনেত্রীর রহস্য মৃত্যু! ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার ঝুলন্ত দেহ, কারণ খুঁজছে পুলিশ

একের পরে এক টলিপাড়ার সদস্যরা আত্মহত্যার পথ বেছে নিচ্ছেন। 10 দিন আগে অস্বাভাবিক মৃত্যু ঘটে টেলিভিশন অভিনেত্রী পল্লবী দের। যদিও সেটা আত্মহত্যা নয় খুন সেটা বিচারাধীন। পল্লবী বাবা-মায়ের অভিযোগ প্রেমিক সাগ্নিক এবং তাদের বান্ধবী ঐন্দ্রিলা খুন করেছে তাদের মেয়েকে। যত দিন যাচ্ছে তদন্তে উঠে আসছে নতুন সকল তথ্য। হয়তো খুব শীঘ্রই এর কিনারা হবে।

কিন্তু এর মধ্যেই জানা গেল, টলিপাড়ার আরেক সদস্য অভিনেত্রী সুইসাইড করেছেন। গতকাল ঘটনাটি ঘটেছে দমদমের রামগড় কলোনিতে। টলিপাড়ার জনপ্রিয় মডেল বিদিশা দে মজুমদার গলায় ওড়না লাগিয়ে আত্মঘাতী হন। তার দেহ সাগর দত্ত মেডিকেল কলেজে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। পুলিশের পক্ষ থেকে দায়ের করা হয়েছে অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা।

কাজের সূত্রে চিনতেন পল্লবী দে’কে এবং তার মৃত্যুর খবরে তার ছবি পোস্ট করে লিখেছিলেন যে এসব কী হলো, মানতে পারলাম না। তার কিছুক্ষণ পরে নিজের সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইলে এরকম পোস্ট দিয়েছিলেন বিদিশা যেখানে তিনি লিখেছিলেন যে তিনি হেরে যাবেন না। সেখানে তার দশ দিন পরে এরকম ঘটনা মানতে খুব কষ্ট হচ্ছে সকলের।

আসল বাড়ি নৈহাটিতে। উত্তর ২৪ পরগনার সাদামাটা জীবন থেকে মডেলিং দুনিয়ার ঝাঁ-চকচকে জগৎ। আপাত ভাবে মনে হয়, দুই পরিবেশেই বেশ খাপ খাইয়ে নিয়েছিলেন বিদিশা। সত্যিই কি তাই? নৈহাটির ২১ বছরের মেয়েটির অকালপ্রয়াণে উঠছে প্রশ্ন। কোথাও গিয়ে কি অবসাদ কাজ করত কোনো?

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Bidisha De Majumder (@bidisha_de_majumder_official)

বছর চারেক ধরে মডেলিং করতেন তিনি। হাতে কাজের অভাব ছিল না। এছাড়া চিত্রশিল্পী হিসেবে বন্ধুমহলে তার ভীষণ সমাদর ছিল। কিন্তু পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ড কে। তাহলে ঝাঁ-চকচকে জগতের কোনো অন্ধকার দিক কি তাকে টেনে নিল মৃত্যুর জগতে?

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button