Bangla Serial

Guddi: “আমি অনুজ নই, সম্পর্কে এত টানাপোড়েন আসতেই দিতাম না”! নিজের চরিত্র নিয়ে নিজেই কি বিরক্ত রণজয়? স্পষ্ট করলো সবটা

‘গুড্ডি’ ধারাবাহিকে একের পর এক নতুন রহস্যের খোলস খুলছে। শেষমেশ কোন দিকে মোড় ঘুরবে তাই এবার দেখার বিষয়! এতদিন গুড্ডি এবং অনুজের মধ্যে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছিল শিরিন। কিন্তু এবার শিরিন-গুড্ডি এবং অনুজের লাভ ট্রায়াঙ্গেলে এসেছে ‘যুধাজিৎ’। যুধাজিৎ-এর সঙ্গে বিয়ে ঠিক হয়েছে গুড্ডির। স্বীকার না করলেও তাকে স্বামী অনুজ এখনও প্রচণ্ড ভালবাসে। অনুজ এখন ভয় পাচ্ছে গুড্ডিকে হারানোর। গুড্ডি বিয়ে করেনিচ্ছে জেনে মানসিক ভাবে ভেঙে পড়়েছে সে।

গুড্ডি তার কাছে একটি শর্তও রাখে। সেই শর্ত মতো বিয়ের আগেরদিন অনুজ এসে সকলের সামনে গুড্ডিকে ভালোবাসার কথা স্বীকার করে এবং বলে যে গুড্ডি তার স্ত্রী! কিন্তু তারপরও গুড্ডি তার সিদ্ধান্তের নড়চড় করবে না বলে জানিয়েছে। আর তাই নিজেকে সামলাতে পারছে না অনুজ। এরমধ্যেই গুড্ডির বিয়ের ঠিক আগেই গাড়ি চালাতে গিয়ে আচমকা প্রাণঘাতী পথদুর্ঘটনা। তাহলে গুড্ডির বিয়ের আগেই কি মৃত্যু হবে অনুজের? এমনই নতুন মোড় ঘুরতে চলেছে নয়া পর্বে?উল্লেখ্য, স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘গুড্ডি’ নায়িকার ভূমিকায় রয়েছেন, শ্যামৌপ্তি মৌদলি ও ‘অনুজ’ ‘রণজয় বিষ্ণু’।

 

 

View this post on Instagram

 

A post shared by RANO JOY (@rano_joy22)

গুড্ডির যুধাজিৎ-কে বিয়ে করা নিয়ে বহু দর্শক গুড্ডিকে খারাপ মেয়ে বলে বিচার করে। অনেকেই বলেন, ‘গুড্ডি বদলে গেছে’। আবার অনেকে বলেন, ‘আবার হয়তো গুড্ডিও পরকীয়ায় জড়াবে!’ এটাও বলছে, ‘গুড্ডি অনেক বড় খেলোয়াড় সবাইকে খেলাচ্ছে!’ এবার এক সাক্ষাৎকারে অভিনেতা রণজয় তাঁর এই ধারাবাহিক নিয়ে কিছু কথা সামনে আনলেন, যদিও ধারাবাহিকে তিনি মরবেন না বাঁচবেন, তাই নিয়ে এখনই মাথা ঘামান না তিনি।

তাঁকে জিজ্ঞাসা করা হয়, ‘গুড্ডি’ সিরিয়ালের মতোই যদি অভিনেতার বাস্তব জীবন হত! তাহলে তিনি কি করতেন? সঙ্গে সঙ্গে রণজয় বলেন, ‘‘বাস্তবে এত টানাপোড়েন হতেই দিতাম না। আমি অনুজ নই। সম্পর্কে এত টানাপোড়েন আসতেই দিতাম না। তার আগেই পুরোটা সামলে নিতাম। এত ঝামেলা হতই না।’’ অভিনেতার কাছে আবার পাল্টা প্রশ্ন রাখা হয়, চরিত্রটি কোনও ভাবে তাঁর মনে ছাপ রেখে যাচ্ছে কিনা? রণজয়ের দাবি, ‘‘একেবারেই না। স্টুডিয়ো ছেড়ে বেরিয়ে আসার সময় চরিত্রকেও ওখানেই ছেড়ে রেখে আসি। পরের দিন আবার সেটে গিয়ে ‘অনুজ’কে ধারণ করি। রূপটান নেওয়ার পরে চরিত্রকে নিয়ে খেলতে দারুণ লাগে। ভিতরে-বাইরে এই দ্বন্দ্ব না থাকলে অভিনয়ের আগ্রহ হারিয়ে ফেলতাম।’’

 

View this post on Instagram

 

A post shared by RANO JOY (@rano_joy22)

সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ধারাবাহিক নিয়ে অভিনেতা-অভিনেত্রী দুজনকেই প্রত্যহ নানানরকম ট্রোলের সামনা করতে হয়। তবে সেসব সামলেই কাজ করে চলেছেন তিনি। এরপরই তাঁর কাছে প্রশ্ন রাখা হয়, ‘খুব শিগগিরিই কি তাহলে চারহাত এক হচ্ছে?’ সঙ্গে সঙ্গে ছোটপর্দার ‘অনুজ’ চুপ করে গেলেন, শুধু বললেন, ‘‘মন্তব্য নিষ্প্রয়োজন।’’

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button