Bangladesh

Actress Dowry: ৫০ লক্ষ টাকা পণের দাবিতে মারধর! দ্বিতীয় বিয়ের ৯ মাসের মধ্যেই ভাঙতে চলেছে অভিনেত্রীর সংসার

ওপার বাংলার ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী হলেন সারিকা সাবরিন। তার পর্দার জীবনে শান্তি থাকলেও বাস্তবে তার জীবনে এখন শুধুই অশান্তি। সম্প্রতি অভিনেত্রী নিজের স্বামীর বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ এনেছেন। সোমবার ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ফারাহ দিবার আদালতে সারিকা সাবরিন বাদী হয়ে মামলাটি করেছেন। পরে আদালত জবানবন্দি নিয়েছে।

বিচারক ফারহা দিবা অভিযুক্তর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়াণা জারির নির্দেশ দিয়েছেন, জানিয়েছেন সারিকার আইনজীবী। মামলার পরবর্তী শুনানির দিন নির্দিষ্ট হয়েছে আগামী ২১শে ডিসেম্বর, খবর সেদেশের সংবাদমাধ্যম সূত্রে।

চলতি বছরের ২রা ফেব্রুয়ারি জি এস বদরুদ্দিন আহমেদ রাহীকে বিয়ে করেন সারিকা। তার স্বামী একজন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার। তিনি একেবারেই পারিবারিকভাবে বিয়ে করেছিলেন। পরিবারের কয়েকজন এবং খুব কাছের কয়েকজন বন্ধু বান্ধব কে নিয়ে নিজের দ্বিতীয় বিয়ের সাথে ছিলেন বাংলাদেশী এই অভিনেত্রী। তবে বিয়ের নয় মাসের মধ্যেই সম্প্রতি এই খবর সামনে এসেছে।

Saarikaa
এক জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, অভিনেত্রীর বিয়েতে ২০ লাখ টাকা দেনমোহর ধার্য করা হয়। বিয়ের সময় সারিকার বাবা-মা বদরুদ্দিনকে ২৫ লাখ টাকার সোনার গয়না সহ ঘরের যাবতীয় আসবাবপত্র দেন। কিন্তু আবার তাঁর কিছু দিনের মধ্যেই বদরুদ্দিন অভিনেত্রীর পরিবারের কাছ থেকে ৫০ লাখ টাকা দাবি করে এবং তাঁকে মারধর করে। প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত ৫ নভেম্বর বদরুদ্দিন সারিকার কাছে ৫০ লাখ টাকা যৌতুক এনে দিতে বলেন। যৌতুকের টাকা না দেওয়ায় এক কাপড়ে তাঁকে বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। সঙ্গে ডিভোর্সের হুমকিও দেন অভিযুক্ত বদরুদ্দিন আহমেদ রাহী।

তারপরে কয়েক সপ্তাহ ধরে বাপের বাড়িতেই রয়েছেন অভিনেত্রী। স্বামীর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ নিয়ে সুবিচার পেতে এখন আইনের দ্বারস্থ অভিনেত্রী। এর আগে ২০১৪ সালে মাহিম করিমের সঙ্গে প্রেম করে বিয়ে করেছিলেন সারিকা।কিন্তু তার দু বছরের মধ্যেই ভেঙে যায় সেই সম্পর্ক। এবার বিয়ের ৯ মাসের মাথাতেই ভাঙতে বসেছে সারিকার দ্বিতীয় বিয়ে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button