Trending

সিনে বাপের নোংরামোর পাশে দাঁড়ালো না তার বৌ রুমা মোদকই! কিরণকেই সাপোর্ট করল রুমা, এবার বর বউ এর ঝামেলা প্রকাশ্যে

বিনোদনের জগতে টিভি সিরিয়াল বাদেও youtube-এর কিন্তু একটা বড় ভূমিকা আছে।ইয়াং জেনারেশন টিভি সিরিয়াল দেখার বদলে ইউটিউবে বিভিন্ন ধরনের কনটেন্ট দেখাতেই বেশি স্বচ্ছন্দ। সেজন্যেই বাংলায় কনটেন্ট ক্রিয়েটর এর সংখ্যা আস্তে আস্তে অনেক বাড়ছে। তবে একদম প্রথম বাংলায় নামকরা ইউটিউবার যদি কাউকে বলতে হয় তাহলে সে হলো বঙ গাই কিরণ দত্ত। নিজের চেষ্টাতেই বছর 26 এর এই ছেলেটি উপরে উঠেছে অনেক তবে সেই সঙ্গে বিতর্কও তাকে তাড়া করেছে প্রচুর।

অভিনেতা অঙ্কুশ হাজরার সঙ্গে বিষমাল বলা নিয়ে গন্ডগোল থেকে শুরু করে সিনেবাপ এর সঙ্গে ঝামেলা। কিরণকে পড়তে হয়েছে অনেক বড় বড় বিপদের মুখে তবে বর্তমানে যা চলছে ইউটিউবে তা বলার নয়। বাঙালি ইউটিউবার কমিউনিটির মধ্যে যে এত বিভেদ ছিল সেটা না দেখলে বোঝাই যেত না।

সিনেবাপ নামে একটি ইউটিউব চ্যানেল রয়েছে যাকে আমরা মীরাক্কেলে মৃন্ময় দাস হিসেবে দেখেছি। তার মানসিকতা অত্যন্ত নিম্ন রুচির। মেয়েদের নিয়ে অশ্লীলভাবে হিউমর উপস্থাপন করা তার চ্যানেলের প্রধান কন্টেন্ট ‌ আর সেটাকেই বর্তমান দিনের অল্প বয়সী ছেলেমেয়েরা বিশাল বড় কনটেন্ট ভেবে ফেলেছে। কথায় কথায় গালিগালাজ আর মেয়েদের অবজেক্টিফাই এটাই হলো মৃন্ময় দাস এর ইউএসপি এবং যারা মেয়েদেরকে শুধুমাত্র সেই চোখে দেখেন তাদের কাছে মৃন্ময় দাস ভগবান। গণ্ডগোল টা হল দাদাগিরিতে আগের সপ্তাহের ক্রিয়েটর স্পেশাল এপিসোড হয়েছিল আর সেখানে কিরণ দত্ত কে ডাকা হয়েছিল এবং আরো অনেক ইউটিউবার কে ডাকা হয়েছিল যাঁদের সাবস্ক্রাইবার হয়তো খুব বেশি নয়। কিন্তু সেখানে ডাকা হয়নি সিনেবাপ কে।

আর এতেই মৃন্ময়ের মাথায় আগুন জ্বলে গেছে কারণ তার তো সাবস্ক্রাইবার ১০ লাখের ওপর তাহলে তাকে কেন ডাকা হল না? ‌প্রতিবাদস্বরূপ সে কিরণকে উদ্দেশ্য করে একটা ভিডিও বানাল এবং সেখানে সে উত্তরবঙ্গের ইউটিউবার এবং দক্ষিণবঙ্গের ইউটিউবার দের মধ্যে ভাগাভাগি করে দিল। তার দাবি ওখানে যারা গেছে তারা তেল মেরে গেছে। সবথেকে বড় কথা কিরণের দাবি যে সিনেবাপের এক ভক্ত কমেন্ট করে বসেন যে ইউটিউবার দূর্বা নাকি কিরণের সঙ্গে ‘শুয়ে’ দাদাগিরিতে গেছে। আর এরপর কিরণ তার প্রতিবাদ করে একটা ভিডিও করে। তার প্রতিবাদে মৃন্ময় আর একটা ভিডিও করে।তার প্রতিবাদে কিরণ একটা ভিডিও করেছে। তার প্রতিবাদে আজ সকালে মৃন্ময় একটা ভিডিও করে। এই চলছে ইউটিউবে এখন।

কিরণের প্রতিবাদ সফিস্টিকেটেড থাকলেও মৃন্ময় নিজের জাত আবার চিনিয়ে দিয়েছে‌ ‌তবে মজার কথা হচ্ছে তার নিজের বউ যার উপর পার্সোনাল অ্যাটাক করেছে কিরণ বলে এত লাফালাফি করছে মৃন্ময় সেইই কিন্তু মৃন্ময়ের পাশে দাঁড়ায়নি। মৃন্ময় এর বউ রুমা মোদক একটি পোস্ট দিয়েছেন এবং সেখানে তিনি স্পষ্ট করে দিয়েছেন যে তিনি মৃন্ময়ের এই কীর্তিকলাপ একদম পছন্দ করছেন না। আর তাকে মৃন্ময়ের কোন ভিডিওতে দেখা যাবে না। তিনি কমেন্ট বক্সে লিখেছেন যে, ‘ম্যাচিউরড হও…বং গাইকে নিয়ে আমার কোন ক্ষোভ নেই।’ এছাড়াও আরেকজনকে তিনি বলেছেন যে, ‘ঘরের লোকই ঠিক নেই, লোকের কথা আমি শুনি না।’অর্থাৎ রুমা গোটা ব্যাপারটা একদমই পছন্দ করেননি এবং তিনি সেটা স্পষ্ট করে নিজের পোস্টে জানিয়ে দিয়েছেন। রুমার ভক্তরা বলছেন,মৃন্ময় এতটাই মাথামোটা যে সেটা আবার শেয়ার করেছেন নিজের ওয়ালে, নিয়ে গর্ববোধ করছে‌ন‌। এখন এই দুজনের লড়াই কখন থামে সেটা দেখা যাক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button