Tollywood

অপমানিত বুম্বাদা! ছেলে তৃষাণজিৎ রোজ রেগে চিৎকার করে বাবার উপর, মা অর্পিতা এসে সামলায়! প্রকাশ্যে ছেলেকে নিয়ে এ কী বলে বসলেন প্রসেনজিৎ?

বাংলা সিনেমায় স্বর্ণযুগ আসে প্রসেনজিতের সময়ে এমনটাই মনে করা হয়। টলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় সুপারস্টার হলেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। পরিবারটাই ফিল্মি বলা যায়। বাবা বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায় এবং বোন পল্লবী টলিউডের বিখ্যাত মুখ। এই তিনজনে বাংলা সিনেমায় যে অবদান রেখেছেন তা ভোলার নয় বাঙালি দর্শকদের কাছে।

তবে এর পাশাপাশি প্রসেনজিতের স্ত্রী অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়ও অসাধারণ অভিনেত্রী। এই বয়সেও যেভাবে নিজেকে ধরে রেখেছেন তা সত্যিই প্রশংসার যোগ্য। স্বামী-স্ত্রী দুজনে মিলে একের পর এক হিট সিনেমা উপহার দিয়ে চলেছেন বাঙালি দর্শকদের।

অর্পিতা ও প্রসেনজিতের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে যার নাম তৃষানজিৎ। ডাকনাম মিশুক। বাবার আদরের মিশুক এখন বিদেশে পড়াশোনা করছে। ছুটি পেলে বাড়িতে আসে এবং বাবা-মায়ের সঙ্গে সময় কাটায়।

সম্প্রতি প্রসেনজিতের একটি সিনেমা মুক্তি পেতে চলেছে যার নাম “আয় খুকু আয়”। সিনেমাতে একটি কন্যা সন্তানের বাবা হলেও বাস্তবে তিনি পুত্র সন্তানের বাবা।

আয় খুকু আয় সিনেমার ট্রেলারে এক জায়গায় দেখা গিয়েছে রেগে গিয়ে বাবার উপরে চোটপাট করছে মেয়ে খুকু অর্থাৎ দিতিপ্রিয়া রায়। বাস্তবেও কি এমনটা হয় প্রসেনজিতের সঙ্গে?

একটি সাক্ষাৎকারে প্রসেনজিৎ জানিয়েছেন বকাঝকা না করলেও মাঝে মাঝে ছেলে টেম্পার নেয় বাবার উপর। টলিউডের বুম্বাদা তখন চুপ হয়ে যান। আর সেই সময় পরিস্থিতি এসে সামলাতে হয় স্ত্রী অর্পিতাকে। তারপর ছেলের মাথা ঠাণ্ডা হলে তখন বিষয়টা ভালভাবে বোঝান প্রসেনজিৎ।

পাশাপাশি ছেলে-মেয়ে বড় হয়ে গেলে তাদের সঙ্গে কিরকম ব্যবহার করতে হয় সে কথাও জানিয়েছেন অভিনেতা। ছেলে-মেয়ে বড় হলে তাদের ভাবনাকে সম্মান দেওয়া উচিত বলে মনে করেন তিনি। ।সিনেমার ট্রেলার মুক্তির সময় অভিনেতা বলেছিলেন সন্তানকে বড় করার এই অনুভূতিটা বাবা-মায়েরা ভালো বুঝবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button