Tollywood

‘অভিষেক চট্টোপাধ্যায়ের মৃত্যুর পর বুম্বাদা, ঋতুপর্ণা কেউ আমাদের কোনো সাহায্য করেননি’, অবশেষে মুখ খুললেন স্ত্রী সংযুক্তা!

গত ২৪শে মার্চ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় অভিনেতা অভিষেক চট্টোপাধ্যায়ের। তাঁর মৃত্যুর পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় নানান গুঞ্জন ছড়াতে থাকে। বলা হয়, অভিষেকের পরিবার অর্থকষ্টে ভুগছে। তাঁর স্ত্রী সংযুক্তা চট্টোপাধ্যায় ও মেয়ে সাইনাকে নাকি বড় বড় তারকারা আর্থিক সাহায্য করেছেন ও আরও নানান খবর।

এবার এসব গুঞ্জন নিয়ে মুখ খুললেন সংযুক্তা চট্টোপাধ্যায়। আজ, বুধবার অভিষেক চট্টোপাধ্যায়ের ফেসবুক প্রোফাইল থেকেই একটি দীর্ঘ পোস্ট করে যাবতীয় গুঞ্জনে জল ঢালেন তিনি। স্পষ্ট জানিয়ে দেন যে এসবই গুজব।

সংযুক্তা চট্টোপাধ্যায়ের সেই ফেসবুক পোস্টের বাংলা তর্জমা করলে যা দাঁড়ায়-
“প্রিয় সকলে

আমি সংযুক্তা। অভিষেকের স্ত্রী।
আপনাদের সবার কাছে এই মুহূর্তে আমার একটাই অনুরোধ। ওঁর মেয়ে সাইনা এবং আমাকে এই কঠিন সময়ে একটু পার্সোনাল স্পেস দিন। এই শোকে আমাদের একটু একা থাকতে দিন। বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া চ্যানেলে যে গুজব ঘুরছে তা বিশ্বাস করবেন না দয়া করে।

অভিষেক এক অসাধারণ মানুষ ছিলেন। চলে গেছেন আমাদের ছেড়ে, কিন্তু পরিবারকে আর্থিকভাবে সিকিওর করে গেছেন। ওঁর কাছে পরিবারই সব ছিল। উনি এটি নিশ্চিত করে গেছেন, যে ওঁর অবর্তমানে আমাদের কারও যাতে কোনও আর্থিক কষ্ট না হয়। নীতিবোধ চরম ছিল ওঁর। জীবনে কখনও কারও থেকে হাত পেতে সাহায্য চাননি। এই মুহূর্তে ওঁর সেই নীতিগুলোকে মর্যাদা জানানো উচিত আমাদের।

অভিষেকের আশীর্বাদে আমি নিজেও আর্থিকভাবে সক্ষম। ইউকে স্থিত একটি ফিনটেক সংস্থায় কর্মরত। একটা কথা আবার বলে রাখি… অভিষেক চট্টোপাধ্যায়ের পরিবারের কোনও আর্থিক সাহায্যের প্রয়োজন নেই। ওঁর কোনও প্রাক্তন সহ-কর্মী সেই সাহায্যের প্রস্তাব নিয়েও আসেননি। এই সবটাই মিথ্যে খবর। এই ধরনের খবরে ওঁর আত্মা কষ্ট পাবে।

দয়া করে ওঁকে নীতিবোধে এককাট্টা অসাধারণ মানুষ হিসেবেই আমরা মনে রাখি। ওঁর চরিত্রে কখনও কোনও দাগ লাগেনি। ট্রেনডিং গুজব থেকে দূরে থাকুন। ওঁর পরিবার, মানে আমরা যাতে মাথা উঁচু করে সম্মানের সঙ্গে জীবনে বেঁচে থাকতে পারি, তার জন্য আপনাদের কাছে এই একটাই অনুরোধ আমার”।

গত ২৪শে মার্চ হঠাৎই সকলকে ছেড়ে না ফেরার দেশে চলে যান অভিনেতা অভিষেক চট্টোপাধ্যায়। তাঁর মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে আসে বাংলা টলি ও টেলি জগতে। কেউ যেন বিশ্বাসই করতে পারছিলেন না যে তাদের প্রিয় নায়ক আর নেই। অফুরন্ত ছবি রয়েছে তাঁর ঝুলিতে। ছবির পাশাপাশি একাধিক ধারাবাহিকেও কাজ করেছেন অভিষেক। তাঁর এই অকালপ্রয়ান বাংলা ইন্ডাস্ট্রির জন্য যে বড় ক্ষতি, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button