আর মাত্র ৬০ দিন বাকি ডেলিভারি ডেটের, তার আগেই গর্ভের সন্তানের লিঙ্গ নির্ধারণ করালেন নুসরাত? শুরু হল জল্পনা!

সম্প্রতি নেট মাধ্যম উত্তাল যে খবর নিয়ে তা হলো অভিনেত্রী ও সাংসদ নুসরাত জাহানের আসন্ন সন্তানের পিতার পরিচয় নিয়ে। বারংবার উঠে এসেছে নুসরাতের সঙ্গে যশের নাম। নিখিল জৈন জানান নুসরাতের আসন্ন সন্তানের পিতা তিনি নন।

নুসরাতের কথা অনুসারে নিখিল আর তিনি নাকি সহবাসে করছিলেন, তারা কোনোদিন বিয়ে করেন নি। আবার কখনো উঠে এসেছে যশের নামও। সব মিলিয়ে একটা বেশ গোলমেলে ব্যাপার সৃষ্টি হয়েছে কিন্তু অভিনেত্রী নুসরাত এসবে আমল না দিয়ে নিজের মাতৃত্বকালীন অবস্থা চুটিয়ে উপভোগ করছেন।

আগামী সেপ্টেম্বরেই মা হতে চলেছেন নুসরত, যা তার বেবি বাম্প দেখে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে।অভিনেত্রী তার দিকে নানা রকম ধেয়ে আসা প্রশ্নবাণকে হারিয়ে দিয়ে নিজের মাতৃত্বকালীন অবস্থা উপভোগ করছেন। এমন অবস্থায় এই লিঙ্গ নির্ধারণকারী কেক কেটে কীসের ইঙ্গিত দিলেন অভিনেত্রী? তবে কি তিনি নিজের সন্তানের লিঙ্গ নির্ধারণ করে ফেলেছেন? উঠছে প্রশ্ন।

পাশ্চাত্য সংস্কৃতিতে একটি প্রথা প্রচলিত আছে, সেখানে সন্তানের লিঙ্গ প্রকাশের উপলক্ষ্যে একটি পার্টি আয়োজন করা হয় এবং কেক কেটে তা উদযাপন করা হয়। যিনি কেকটি বানান কেবল তিনি এই বাচ্চার লিঙ্গ সম্পর্কে অবগত থাকেন। কেকটি বানানোর সময় তার ভিতর নীল বা গোলাপি স্তর থাকে। নীল স্তর পুত্র সন্তানের ইঙ্গিত দেয় আর গোলাপি স্তর কন্যা সন্তানের।

nusrat boy or girl cake

ঠিক এমনই একটি কেক কেটে উদযাপনের ছবি পোস্ট করেছেন ইনস্টাগ্রামে অভিনেত্রী। যে কেক নীল আর গোলাপি স্তর দিয়ে সজ্জিত এবং সেখানে লেখা রয়েছে ‘boy or girl’। সেখানে বয় এর উপর নীল এবং গার্ল এর ওপর গোলাপি পতাকা আঁকা। অর্থাৎ ধরে নেওয়া যায় তার গর্ভের সন্তান ছেলে না মেয়ে তার আভাস তিনি পেয়ে গেছেন। কিন্তু এখনই সেটা প্রকাশ করছেন না। আবার এমনও হতে পারে, সন্তানের লিঙ্গ তিনি জানেন না, তাই দুটো রঙই আছে। সব প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যাবে সেপ্টেম্বর মাসে তার ডেলিভারি হওয়ার পর। ততদিন পর্যন্ত তার অনুরাগীদের অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করতে হবে।

Back to top button