Tollywood

‘সোনার সংসার অ্যাওয়ার্ডে অঙ্কুশ অতিরিক্ত ন্যাকামো করছিল, এর জায়গায় যীশু থাকলে ভালো লাগত’, মত নেটিজেনদের! আপনাদের কেমন লাগলো অঙ্কুশের সঞ্চালনা?

গতকাল বিকাল সাড়ে পাঁচটা থেকে রাত সাড়ে নটা পর্যন্ত বাঙালি টানা বসেছিল জি বাংলার সামনে। কারণ কালকে যে হচ্ছিল জি বাংলা সোনার সংসার অ্যাওয়ার্ড। নিজেদের সমস্ত প্রিয় সিরিয়ালের সমস্ত চরিত্ররা জড়ো হয়েছিলেন ইকো পার্কে। হৈ-হুল্লোড়ে কেটে গেছে গোটা সন্ধ্যা। জমজমাট আনন্দের সঙ্গে ছিল পেট ভরা সুস্বাদু খাবার। বিশ্বনাথ বসু তো ক্যামেরার সামনে স্বীকার করেই ফেললেন তিনি জি বাংলা সোনার সংসার অ্যাওয়ার্ডে মূলত যান খাবারের জন্য।

কালকে শোয়ের অ্যাঙ্কারিং করছিলেন অঙ্কুশ এবং আবির চ্যাটার্জি। মাঝে কিছুক্ষণের জন্য ইন্দ্রানী হালদার করেছিলেন। তবে সারা সময়টা ধরে মাতিয়ে রেখেছিলেন অঙ্কুশ এবং আবির। দুজনে একদম বিপরীত পারসোনালিটির। আবির যেখানে শান্তশিষ্ট সেখানে অঙ্কুশ তার স্বভাববশত ছ্যাবলামি করেই যাচ্ছিলেন।

তবে অ্যাওয়ার্ড শো শেষ হওয়ার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখা গেল অঙ্কুশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ জমেছে অনেকেরই। জি বাংলা সিরিয়ালের অনুরাগীরা বলেছেন যে অঙ্কুশের অতিরিক্ত ন্যাকামির জন্য তাদের অ্যাওয়ার্ড দেখতে আর ইচ্ছা করছিল না।

সমস্ত মেয়েদের গায়ে পড়া, পিলু,গৌরী এদেরকে মজার ছলে বিরক্ত করা, মিঠাই অপুর মুখে জোর করে ফুচকা ঢোকানো, পায়েল সরকার কে নিয়ে ধুম করে স্টেজে পড়ে যাওয়া, এসবকিছুই স্ক্রিপ্টের হলেও দর্শক মোটেই ভাল চোখে দেখেনি তার প্রমাণ সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন পোস্ট এবং কমেন্ট। জি বাংলার গ্রুপগুলোতে এবং অন্যান্য যে বিনোদনমূলক গ্রুপ আছে তাতে অনেকেই স্পষ্ট করে লিখেছেন যে অঙ্কুশের ভাঁড়ামো সহ্য হয় না এখন আর।

তার বদলে তারা অনেকেই বলেছেন যে এর জায়গায় যদি যীশু সেনগুপ্ত কে রাখা যেত অনেক ভালো হতো। অনেকেই আবার বলছেন যে যীশুই যদি অঙ্কুশের কাজ করত সেটা হয়ে যেত ভাঁড়ামো আর এখন অঙ্কুশ করলে সেটা কিছু নয়।

সব মিলিয়ে বোঝা যাচ্ছে যে একটা বড় অংশের মানুষের কালকে অঙ্কুশের সঞ্চালনা একদম ভালো লাগেনি। তবে অঙ্কুশ এই ব্যাপারে জানলে তিনি কী বলবেন সেটা এখনো জানা যায়নি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button