Tollywood

Tithi Basu: “ছি কালো বগল, বগল পরিষ্কার কর”! বোল্ড অবতারে ছবি দিতেই নোংরা ইঙ্গিতের শিকার পর্দায় ছোট্ট ঝিলিক! অবশেষে খুললেন মুখ

এককালে স্টার জলসা সিরিয়াল জনপ্রিয় ধারাবাহিক “মা”- এর কথা মনে আছে তো? মা আর ছোট্ট ঝিলিকের কাহিনী ছিল সেই ধারাবাহিক। প্রথম অভিনয় করেই দর্শকদের কাছ থেকে এই অভিনেত্রী পেয়েছিলেন বিপুল প্রশংসা এবং ভালোবাসা। শিশু শিল্পী হিসেবে ছোট পর্দায় আত্মপ্রকাশ করলেও পর্দায় তাঁর অভিব্যক্তি যে কোন পরিণত শিল্পীকেও হার মানাতে পারে।

আশা করছি এতক্ষণে আপনারা বুঝেই গেছেন আমরা কোন শিল্পীর কথা বলছি। তিনি হলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী “ঝিলিক” খ্যাত তিথি বসু। আজও বেশিরভাগ মানুষ হয়তো এই নায়িকার আসল নাম না জেনে তাঁকে চেনে ঝিলিক হিসেবেই। ঝিলিক চরিত্রটির ছোটবেলাকে সুচারুভাবে ফুটিয়ে তুলেছিলেন তিথি।

তখন খুব ছোট্ট ছিলেন অভিনেত্রী। ওই একটা ধারাবাহিকের পর নাম ডাক ছড়িয়ে পড়েছিল গোটা ইন্ডাস্ট্রি জুড়ে। কিন্তু হয়তো পড়াশোনার কারণে অভিনয় থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন অভিনেত্রী তিথি বসু। সেই ধারাবাহিকের পর টেলিভিশনে আর কোথাও দেখা গেল না এই নায়িকার মুখ। তবে দর্শক এখনো অপেক্ষা করে তাঁর ফিরে আসার।

তিথি এখন প্রাপ্তবয়স্ক। নায়িকা আবার ফিরে এসেছেন দর্শকদের মাঝে তবে এখন আর অভিনেত্রী নন বরঞ্চ বাস্তবের তিথি বসু হিসেবে সোশ্যাল মিডিয়ায় অসংখ্য দর্শকের মাঝে আলোচিত হন তিনি। তিথি সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ সক্রিয়। মাঝে মাঝে বিভিন্ন ধরনের ছবি বা ভিডিও শেয়ার করে থাকেন।

ছোট্ট মেয়েটির নানা ধরনের সাহসী লুক অনেকেই দেখে অবাক হয়ে যায় আবার অনেকেই বিশ্বাস করতে পারে না যে সেই ছোট্ট ঝিলিক আজ এত বড় হয়ে গেছে। নানা ফটোশুটের ছবি মাঝে মাঝেই শেয়ার করে থাকেন অভিনেত্রী। বরাবরই গোলগাল চেহারার তিথি মেদ ঝড়িয়ে এখন নিজেকে বেশ ছিপছিপে বানিয়ে ফেলেছেন। দিন-দিন আরও বেশি আকর্ষণীয় হয়ে ওঠার জন্য যেমন প্রশংসা মিলছে তেমনই পাশাপাশি প্রচুর কটাক্ষ শুনতে হচ্ছে।

দিনকয়েক আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি কালো রঙের শরত ড্রেস পরে ছবি দেওয়ার পর নানা ধরনের কুরুচিকর মন্তব্য আসে নায়িকার উদ্দেশ্যে। কাঁধ খোলা সেই ড্রেসে দেওয়ালে পিঠ ঠেকিয়ে পোজ দেন তিথি। হাতের একটা ট্যাটু স্পষ্ট। কিন্তু ছবিটা একেবারেই ভালো লাগেনি দর্শকদের উপরন্তু তারা নানাভাবে সমালোচনা করেছে নায়িকার।


অধিকাংশ মানুষ নাইকা শরীরের একটি বিশেষ অংশ নিয়ে সমালোচনা করেছে আর সেটি হল বগল। ছবিতে নায়িকার বগলে কালো দাগ স্পষ্ট হয়ে উঠেছে যেটা একেবারেই ভালো লাগেনি বলে মন্তব্য করছে দর্শকরা। কেউ লিখেছে বগল কী কালো ছি, আবার কেউ লিখেছে বগল ভালো করে পরিষ্কার করো। অশ্লীল ইঙ্গিত জুটেছে কারণ শর্ট ড্রেসের ফাঁক দিয়ে তিথির অন্তর্বাস বেরিয়ে এসেছে।

এত কটাক্ষ এত সমালোচনার পর অবশেষে এই নিয়ে মুখ খুললেন তিথি বসু। তিনি বলেছেন আগে সমস্ত কমেন্ট দেখতেন এবং যেগুলি পছন্দ হতো না সেগুলি ডিলিট করে দিতেন কিন্তু এখন আর এই বিষয়ে বিশেষ মাথা ঘামান না তিনি। যে যেমন কমেন্ট করছে করুক। ট্রোলারদের খুব একটা বেশি পাত্তা দেন না আর।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button