Entertainment

ভেঙে গেল ৪০ এর স্বর্ণেন্দু আর ২৫ এর শ্রুতির প্রেম?এবার এই নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেত্রী নিজেই!

এতদিন নানান বিষয় নিয়ে নানা কথা শুনে এসেছেন তিনি। এও শুনেছেন তিনি নাকি তাঁর বাবার বয়সী একজনের সঙ্গে প্রেম করছেন। তবে এবার নতুন গুঞ্জন টেলি অভিনেত্রী শ্রুতি দাসকে নিয়ে। গুঞ্জন উঠেছে, পরিচালক স্বর্ণেন্দু সমাদ্দারের সঙ্গে নাকি তাঁর সম্পর্ক ভেঙেছে। টেলিপাড়ায় তো বটেই, সোশ্যাল মিডিয়াতেও চলছে ফিসফাস।

এবার এই বিষয় নিয়ে আজ, ২৬শে জানুয়ারি স্বমহিমায় নিজের খুব পরিচিত কারোর প্রতি আক্রমণ শানালেন শ্রুতি। তিনি সাফ জানান যে এই গুঞ্জন সম্পূর্ণ মিথ্যে। তাঁর লেখনী অনুযায়ী, তাঁর খুব পরিচিত কেউই তাঁর সম্বন্ধে এই গুঞ্জন রটাচ্ছে।

কিন্তু কে সে? তাঁর পরিবারের কেউ নন কারণ শ্রুতির পরিবার স্বর্ণেন্দুকে খুবই পছন্দ করে। তবে কে?

জানার জন্য তাঁকে এক সংবাদমাধ্যমের তরফে হোয়াটসঅ্যাপে মেসেজ করা হয়েছিল। উত্তরে শ্রুতি জানান, তিনি নিজেকে আড়ালে রাখতে শিখে গিয়েছেন। তাঁর কথায়,“লোকে সারাক্ষণ আজেবাজে কথা বলেই চলেছে! আমার আর কী করার আছে”? তাঁর কথায়, এটি তাঁর অত্যন্ত ব্যক্তিগত বিষয়। তাই এই নিয়ে তিনি মুখ খুলতে চান না।

তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করে শ্রুতি লেখেন, “আমায় একদিন তুই-ই বলেছিলি, ইন্ডাস্ট্রিতে কেউ কারওর বন্ধু হয় না শ্রুতি। সবাইকে এত বিশ্বাস করে ভালবাসিস না, ঠকবি! আমি বলেছিলাম, তুই তো ও রকম না, ব্যস। আজ আমিই ঠকলাম তোকে ভালবেসে। স্বর্ণেন্দুর সঙ্গে আমার ব্রেক-আপ হয়নি, হবেও না”। এরপরই তাঁর অনুরোধ, “খামোকা আমাদের ব্রেক আপ হয়েছে এই নিয়ে মেসেজ করছেন যাঁরা করবেন না”।

বরাবরই চেনা ছকের বাইরে এসে কথা বলেছেন শ্রুতি। তাঁর গায়ের রঙ, পোশাক নিয়ে এর আগে কাটোয়ার মেয়েটিকে কম কটাক্ষ সহ্য করতে হয়নি। এসেছে তাঁর মরণ কামনাও। তবে সবকিছুকে উপেক্ষা করে এগিয়ে গিয়েছেন তিনি। কিছুদিন আগে মামাভাতের বদলে প্রথা ভেঙে বোনপোকে মাসিভাত খাইয়েছিলেন তিনি।

সমাজকে বার্তা দিয়ে শ্রুতি বলেছিলেন, “নিজের বোনপোকে মিমিভাত খাওয়ানোর মজাই আলাদা। আমি সফল। প্রথা ভাঙার আনন্দই অন্য রকম”। অভিনেত্রী প্রশ্নও ছুঁড়ে দিয়েছিলেন যে সবসময় মামা ভাত কেন? মা-মাসিরাই তো খাওয়ান রোজ বাচ্চাদের। বাবা বা মেসোরা কদাচিৎ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button