রাস্তার দোকান থেকে চেয়েচিন্তে নুডুলস খেলেন সুচিত্রা সেনের নাতনী রাইমা সেন! দোকানদার বুঝতেও পারলেন না তিনি কে

সত্যি কখন যে কার ভাগ্য খুলে যায় একথা বলাই যায় না। রুপোলি পর্দার নায়িকা রাস্তার দোকান থেকে চেয়ে চেয়ে নুডুলস খাচ্ছেন এ কথা যেন স্বপ্নেও ভাবা যায় না। কিন্তু এবার ঠিক সেরকমটাই হল বিধান নগরে। একটি বেসরকারি ক্লিনিকের উদ্বোধন করতে এসে খিদে পেয়ে গেছিল নায়িকা রাইমা সেনের। তিনি গাড়িতে ওঠার সময় দেখতে পেলেন একটি ফুড স্টল আর নেমে পড়লেন সেখানে খেতে।

অথচ দোকানি কমলাকান্ত দাস তাকে কিন্তু চিনতে পারেননি। তবে রাস্তায় আস্তে আস্তে ভিড় জমতে শুরু করলো। নায়িকাকে ব্যাকগ্রাউন্ডে রেখে সেলফি তুলে সাথে সাথে পোস্ট করে দিলেন অনেকেই। কিন্তু দোকানীর সেদিকে কোন হুঁশ নেই।তিনি নিজের মনে চা করছেন, ওমলেট ভাজছেন আর গজর গজর করে যাচ্ছেন যে, ‘সুন্দরী দেখলেই হামলে পড়ে লোকে!’ এদিকে তার ফুটপাথের ছোট দোকানে এসে দু’রকমের নুডুলস খেয়ে গেলেন রাইমা সেন। এক প্লেট নুডুলস তিনি খেলেন এবং আর এক প্লেট তিনি প্যাক করে নিয়ে গেলেন।

Raima Sen

এদিকে যখন তাকে জানানো হলো যে তার দোকানে এসেছিলেন রাইমা সেন তখন তিনি আকাশ থেকে পড়লেন। বললেন, “সুচিত্রা সেনের নাতনি আমার দোকানে এতক্ষণ থাকলেন? এত কথা বললেন। মাস্ক খুলে খেলেন। তাও আমি চিনতে পারলাম না!”তখন আশেপাশের দোকানদাররা তাকে বলছেন যে, দেখবি তোর দোকানের বিক্রি কাল থেকে চার গুণ হয়ে যাবে। এদিকে কমলাকান্ত দাস জানান এর আগে তিনি দেবকে চা খাইয়েছিলেন। এখন সুচিত্রা সেনের নাতনিকে নুডুলস খাওয়ালেন তাই তিনি অত্যন্ত ভাগ্যবান।এদিন সন্ধ্যাবেলায় বিধাননগরের এই ফুটপাতে দোকানে যা হলো তা রূপকথার থেকে তো কম নয়।

Back to top button