Bangla Serial

Chhanda Karanji: ৭৫ বছর বয়সে কোমরের হাড় ভেঙে দুই টুকরো হয়ে গেছিল, তবুও সার্জারি করেই আবার শুটিং সেটে ফিরে এসেছেন বোধিসত্ত্বের ঠাকুমা ছন্দা করাঞ্জি চট্টোপাধ্যায়! মনের জোরকে কুর্নিশ নেটিজেনদের

বাংলা টেলিভিশন জগতে যে সকল বয়োজ্যেষ্ঠ অভিনেতা অভিনেত্রীরা রয়েছেন তাদের মধ্যে একজন হলেন ছন্দা করঞ্জি চট্টোপাধ্যায়। তাকে আমরা ছোট পর্দা থেকে বড় পর্দায় সব জায়গায় অভিনয় করতে দেখেছি। তাকে সম্প্রতি দেখতে পাওয়া যাচ্ছে জি বাংলার ধারাবাহিক “বোধীসত্তের বোধবুদ্ধি”তে। ধারাবাহিকে তিনি বোধীর ঠাম্মার ভূমিকায় অভিনয় করছেন। এই ধারাবাহিকে আরো বেশ কিছু জনপ্রিয় অভিনেতা-অভিনেত্রীররা রয়েছেন যেমন বিশ্বনাথ বসু সোনালী চৌধুরী সমতা দাস সৌরভ চক্রবর্তী এবং সুমন্ত মুখার্জী।

Bodhisattwar Bodhbuddhi Zee Bangla Serial Launching On 4th July
প্রসঙ্গত ধারাবাহিকটি দেখতে পাওয়া যায় টিভির পর্দায় রাত দশটা থেকে। চলতি বছরের জুলাই মাস থেকে শুরু হয়েছে এই ধারাবাহিকটি। ধারাবাহিকের কেন্দ্রবিন্দু পুরোটাই একটি বাচ্চা ছেলেকে নিয়ে। যার বুদ্ধি এতটাই বেশি যা একদমই সাধারণ বাচ্চাদের মত নয়। আর তার পরিবার, স্কুল এইসব নিয়েই ধারাবাহিকের গল্প গড়ে উঠেছে।

Chhanda Karanji Chattopadhyay - YouTube
এই ধারাবাহিকে বোধীর ঠাম্মার ভূমিকায় দেখতে পাওয়া যাচ্ছে ছন্দা করঞ্জি চট্টোপাধ্যায়কে। তার সাথে বোধীর সম্পর্কটা বেশ মিষ্টি। তবে এই অভিনেত্রী বহু বছর ধরে বাংলা টেলিভিশন এবং চলচ্চিত্র জগতে অভিনয় করছেন। একাধিক জনপ্রিয় ধারাবাহীকে অভিনয় করতে দেখা গেছে তাকে।এবং তার সঙ্গে অনেক জনপ্রিয় ছবিতেও কাজ করেছেন তিনি। যেমন “কালবেলা”, “বিপর্যয়” ,”গুলদাস্তা”, “উজানতলী” প্রভৃতি।

How Cyclone Amphan wrecked Kolkata: Six personal diaries | Mint
এই অভিনেত্রী সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে তার জীবনের ভয়ংকর দুর্ঘটনার কথা বলেন। তিনি বলেন কিছুদিন আগে তিনি রাস্তায় দাঁড়িয়ে ছিলেন রাস্তা পার হবে বলে। সেখানেই পিছন থেকে একটি গাড়ি এসে তাকে ধাক্কা মারে এবং তিনি পড়ে যান ফলে তার কোমরের হাড় ভেঙ্গে যায়। ফলে বেশ কিছুদিন তিনি হাসপাতালেও ছিলেন।

SureshTolani - Twitter Search / Twitter
কিন্তু অভিনেত্রী তাও হাসিমুখে একটু সুস্থ হওয়ার পর থেকেই অভিনয়ে ফিরেছেন। তিনি কথায় কথায় বলেন যে তার বাড়িতে ৫৫ টা সিঁড়ি, কোন লিফট নেই। তাই তাকে সেই ৫৫ টা সিঁড়ি ওঠানামা করতে হয়। তাকে জিজ্ঞাসা করা হলে যে তিনি এত মনের জোর কোথা থেকে পান? তখন তিনি বলেন, “যে আয়ু আমার হাতে নয় সেটা কতটুকু আছে তা আমি জানিনা কিন্তু যেটুকু আছে সেটুকু তো কাজে লাগুক।”

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button