Food

পটল ডিমের এই রান্না খেলে ভুলে যাবেন মাছ মাংসের স্বাদ! আগে খাননি ডিম পটল কারি

শরীরের দৈনন্দিন প্রোটিনের চাহিদা মেটাতে মাছ মাংস বা ডিম রোজ খেতে বলেন ডাক্তাররা। তবে সকলের পক্ষে রোজ মাছ বা মাংস খাওয়ার সামর্থ্য থাকে না। সেক্ষেত্রে ডিম হতে পারে উপকারী। ডিমের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন থাকে, আর এটা নানাভাবে রান্নাও করতে পারেন আপনি।

আজকে যে পদটি আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করা হলো সেটি আগে খুব কম লোক খেয়েছেন। অনেকেই পড়ে ভাবছেন হয়তো একসঙ্গে কী করে রান্না করা যায়? আবার কেউ কেউ ভাবছেন টেস্ট কেমন হবে? হলপ করে বলতে পারি একবার খেলে বারবার খেতে মন চাইবে। এটা এমনই একটা পদ। আপনাদের জন্য এমনই একটি রান্না, লোভনীয় ডিম পটল কারি তৈরির রেসিপি শেয়ার করা হলো।

উপকরণ: সেদ্ধ ডিম
পটল
রান্নার জন্য তেল
টক দই
পেঁয়াজ কুচি
কাজু বাদাম পেস্ট
কাঁচা লঙ্কা
লঙ্কা গুঁড়ো, গরম মশলা গুঁড়ো
ঘি
পরিমাণ মত নুন

পদ্ধতি: পটলের খোসা ছাড়িয়ে নিতে হবে হবে আর সেগুলোকে মাঝখান থেকে চিরে নেবেন। রান্নার জন্য সেদ্ধ ডিম খোসা ছাড়িয়ে নিতে হবে। আর ডিম গুলোকেও মাঝ বরাবর চিরে দিতে হবে। কড়ায় ৪ চামচ মত তেল নিয়ে হবে তেল গরম হলে সামান্য নুন ছড়িয়ে দিয়ে পটলগুলোকে দিয়ে লালচে করে ভেজে নেবেন আর ডিমগুলোকেও লালচে করে ভেজে নিয়ে তুলে রেখে দেবেন। ওই তেলেই পেঁয়াজ কুচি দিয়ে ১ মিনিট মত ভেজে নিয়ে তার মধ্যে আদা রসুন বাটা ও সামান্য লঙ্কা গুঁড়ো দিয়ে ভালো করে নেড়েচেড়ে ভাজতে থাকুন।

পেঁয়াজ দিয়ে ভাজা হয়ে গেলে ২ চামচ টক দই, কাজু বাদাম পেস্ট ও ২-৩টে মত কাঁচা লঙ্কা চেরা দিয়ে সবটা ভালো করে নেড়েচেড়ে নেবেন। তেল ছাড়তে শুরু করলে ভেজে রাখা পটল ও ডিম কড়ায় দিয়ে ভালো করে নেড়েচেড়ে মাখিয়ে নিন মশলার সঙ্গে।পরিমাণ মত নুন দিয়ে ২ মিনিট মত রান্না করে নিয়ে পরিমাণ মত জল ঢেলে দেবেন। রান্না প্রায় তৈরী, তবে এই সময় সামান্য গরম মশলা গুঁড়ো আর ১ চামচ ঘি ছড়িয়ে দিলেই ষোল কলা পূর্ণ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button