Entertainment

‘শহরের উষ্ণতম দিনে’ মুখোমুখি বিক্রম-শোলাঙ্কি! তুমুল ঝগড়া! শুটিংয়ের কী হলো?

২০১৫ সালে অনুরাগ ও মেঘলা হিসেবে বিক্রম-সোলাঙ্কি জুটি যাত্রা শুরু করেন। ২০১৭ সালের ২৮ মে “ইচ্ছে নদী” ধারাবাহিকের যাত্রা শেষ হয়। বাংলা টেলিভিশনের দুনিয়ায় এই দুজনেই যথেষ্ট জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিলেন দু’বছরের মধ্যে। জনপ্রিয় এই জুটিকে নিয়েই ‘শহরের উষ্ণতম দিনে’র শুটিং শুরু করলেন অরিত্র।

ছোটপর্দার জুটি বড়পর্দাতেও আসছেন এমনটা বাংলা টেলিভিশনের পর্দায় খুব বেশি দেখা যায় না। তাই যাঁরা এই জুটিকে ভালবাসেন তাঁরা অপেক্ষায় রয়েছেন সিনেমার মুক্তির। দেখতে গেলে এটা শোলাঙ্কি রায়ের দ্বিতীয় ছবি। এর আগে “বাবা বেবি ও” সিনেমায় যিশু সেনগুপ্তর বিপরীতে অভিনয় করে দর্শকদের মন কেড়ে নিয়েছেন এই বাঙালি নায়িকা।

পাঁচ বছর পরে ফের পর্দায় একসঙ্গে কাজ করতে চলেছেন “ইচ্ছে নদী” জুটি অর্থাৎ বিক্রম চট্টোপাধ্যায় এবং শোলাঙ্কি রায়। কিন্তু দেখা হতেই শুরু হলো ঝগড়া। সে একেবারে তুমুল অশান্তি। তাহলে কি কোনও পুরনো শত্রুতা মাথাচাড়া দিয়ে উঠলো? নাকি নতুন কোনও কারণ নিয়ে হলো ঝগড়া। শুধু তাই নয়, এই ঝগড়ার ভিডিও আবার ভাইরাল হয়ে গেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। দর্শকরা তো দেখে অবাক। কিন্তু দুজনের হলোটা কী?

রবিবার শুরু হয়েছে তাঁদের নতুন ছবি ‘শহরের উষ্ণতম দিনে’-এর শ্যুটিং। এর পরিচালনা করছেন অরিত্র সেন। রবিবাসরীয় ছুটিতে বিক্রম এবং অভিনেত্রী দুজনেই নিজের ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন। এই ভিডিওতেই তাঁদের নতুন সিনেমার কথা ঘোষণা করেন দুজন মিলে। আর দেখা যায় গোটা ভিডিও জুড়েই শুধু দুজনের ঝগড়া। রাগের বশে আবার বিক্রমের গলাও টিপে ধরে ফেলেছেন শোলাঙ্কি।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Solanki Roy (@srbrishti.19)

না, ভয়ের কিছু নেই, পুরোটাই মজার ছলে করেছেন তাঁরা। আর ঝগড়ার বিষয়গুলিও খুব মজার। কতদিন পরে দুজন একসঙ্গে পর্দায় এলেন। কিন্তু এসেই ঝগড়া। কার নাম আগে যাবে তা নিয়ে তুমুল খুনসুটি থুড়ি ঝগড়াঝাঁটি শুরু হলো অনুরাগ ও মেঘলার মধ্যে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button