Tollywood

Sreelekha Mitra: “টলিউডে রে’প হয় না, যা হয় নারী-পুরুষের সম্মতিতেই”! ইন্ডাস্ট্রির কদর্য চেহারা সামনে আনলেন শ্রীলেখা

শ্রীলেখা মিত্র মানেই ঠোঁটকাটা, সোজাসাপ্টা। তিনি সোজা কথা কারুর ভয়ে বেঁকিয়ে বলতে পারেন না। আর তাই ইন্ডাস্ট্রিতে তার বন্ধু সংখ্যা কম। কিন্তু তিনি আপোস করেন না।

মাঝে মাঝেই নায়িকা অফ দ্য ট্র্যাক কথা বলেন। তাই তিনি অনেকে বিরাগভাজন হয়েছেন। বহুদিন আগে এক সাক্ষাৎকারে তিনি টলিউড নিয়ে কিছু সিক্রেট ফাঁস করেন। আবার সেটা ভাইরাল।

এক সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে সাক্ষাৎকার নায়িকা নিজের মুখে স্বীকার করেছেন যে তিনি তেল দিতে পারেন না। ইন্ডাস্ট্রির অনেকেরই আত্মসম্মান বোধ নেই। তাই তাদের তুলনায় তিনি কম কাজ পান। যেটাতে তার মন সায় দেয় না, সেটা তিনি করেন না।

তবে এই প্রসঙ্গেই একটা বিস্ফোরক তথ্য এনেছেন। কাজ পেতে গেলে একজন হিরো বা ডিরেক্টরের সঙ্গে প্রেম হলে বছরে দু’টো ছবি বাঁধা। আর সেটা হয়নি বলেই কি তিনি পর্দায় প্রসেনজিতের বোন হয়ে থেকে গেলেন? সে সময় প্রসেনজিত্ ওয়ান ম্যান ইন্ডাস্ট্রি। কিছু এক নায়িকার সঙ্গে ওঁর জুটি জমেছিল। তাঁদের সঙ্গে সম্পর্কও ভালো ছিল। কিন্তু, নায়িকার সঙ্গে হয়তো জুটিতে ততটা কমফর্টেবল ছিলেন না, দাবি তার। তারপর কোনও এক অজ্ঞাত কারণে হয়তো তার সঙ্গে উনি আর কাজ করতে চাননি। তিনি মনে করেন জুটি হলে বোধহয় একটা প্রেম থাকতে হয়, উত্তম সুচিত্রা জুটি…প্রাক্তন…। কিন্তু তার তো সবাই ‘বাডি’, বন্ধু হয়ে গেল। প্রেমটা আর হল না করা।

এবার এলো কাস্টিং কাউচের কথা। তিনি স্বীকার করেন যখন তিনি ইন্ডাস্ট্রিতে এসেছেন তখন এই সমস্যা ছিল। একটা হিন্দি সিনেমা গোবিন্দার বিপরীতে কাজ করার কথা ছিল তার। পরিচালক সাবস্ক্রিপট পড়ে শোনানোর জন্য ডাকলেন এবং নায়িকা নিজের ভাইকে নিয়ে গেলেন। খাওয়া গল্প সব হলো কিন্তু শোনালেন না তিনি। আসলে দুজন স্টেপ না নিলে এগোনো যাবে না। তাই নায়িকার দাবি ইন্ডাস্ট্রিতে কোনও রে’প হয় না। কারও ইচ্ছে বা অ্যাম্বিশনটাকে উস্কে দেওয়া হয়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button