Tollywood

মাত্র ১৩ বছর বয়সে বিয়ে করেছিলেন! এরপর চা বিক্রি থেকে ট্যাক্সির ড্রাইভারি সব করতে হয়, কষ্টের লড়াইয়ের কথা জানালেন প্রসেনজিতের বোন পল্লবী

বাংলার সিনেমার জগতে জনপ্রিয় নাম প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় এবং পল্লবী চট্টোপাধ্যায়। দুজনেই ভাই বোন হলেও দুজনের জীবনের গতি একদম আলাদা খাতে বইছে। দুজনেই ইন্ডাস্ট্রিতে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার লড়াইয়ে ময়দানে নামলেও দুজন একইরকম সফল হতে পারেননি। দাদা টলিউডের সুপারস্টার কিন্তু বোন সেভাবে সফল হতে পারলেন না।

শতাধিক সিনেমায় অভিনয় করে দশকের পর দশক বাঙালি দর্শকের মনে নিজের জায়গা করে নিয়েছেন প্রসেনজিৎ।

এদিকে প্রসেনজিতের বোন পল্লবী চ্যাটার্জীকে কিন্তু সেভাবে চেনেন না অনেকেই। তবে সেটাও একটা লড়াই নায়িকার কাছে। কারণ দুজনের কাঁধে ছিল বাবা বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের গৌরবকে বয়ে নিয়ে যাওয়া।

তবে দুজনের মধ্যে কারুরই জীবনের শুরুটা খুব মসৃণ ছিল না। একটা পর্যায় অর্থ কষ্টের মধ্যে দিয়েও যেতে হয়েছে দুজনকেই। বেশ অনেকটাই লড়াই করেছেন তাঁরা সামান্য কিছু অর্থ উপার্জনের জন্য।

নায়িকার জীবনের এই কষ্ট তিনি শেয়ার করেছেন এক টক শোয়ে এসে। তাঁর বয়স যখন ১৩ বছর তখনই বিয়ে হয়। শশুরবাড়ি থেকেই পড়াশোনা থেকে ক্ল্যাসিকাল গানের শিক্ষা শেষ করেছিলেন তিনি। ১৫-১৬ বছর বয়সেই মা হয়ে যান। তাঁর জীবনে এমন এক সময় গেছে যখন মাকে সাহায্য করতে চা বিক্রি করতে হয়েছে। মল রোড, দমদমে চা বিক্রি করতে আসতেন প্রসেনজিৎ। এতে কষ্ট শেষ হয়নি, ট্যাক্সি ড্রাইভার হয়েছিলেন পল্লবী। ছোট বয়সে অভিনয়ের জন্য কলকাতায় এসে পড়ায় কাজ না মেলায় চাকরি করতে হয়েছিল ড্রাইভারের।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button