Tollywood

আধ ঘণ্টার বেশি সময় ধরে কথা কাটাকাটি, এরপর ঝরঝর করে কান্না!তাও কলকাতা বিমানবন্দরে ইন্ডিগোর বিমানে উঠতে দেওয়া হল না ঋতুপর্ণাকে

ভোরের ফ্লাইট। বোর্ডিংয়ের সময় ছিলেনভোর ৪.৫৫ মিনিট। টলি নায়িকা ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত পৌঁছেছেন ৫.১২ মিনিটে। কিন্তু তারপর হলো সমস্যা। টানা ৪০ মিনিট নাকি বচসা হয়েছে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে। প্রথম সারির একটি বিমান সংস্থার বিরুদ্ধে অভিযোগ তুললেন নায়িকা।

গন্তব্য আহমেদাবাদ। সেখানে দিন-রাতের শ্যুট করতেই যাচ্ছিলেন ঋতুপর্ণা। কিন্তু সেই কাজ আর হলো না কারণ সময়মতো বিমানের চড়তে পারেননি তিনি।

আহমেদাবাদের বিমানের জন্যে যাত্রীদের গেট নং ১৯-এ বোর্ডিংয়ের সময় ভোর ৪.৫৫ দেওয়া হয়েছিল। ঋতুপর্ণা এয়ারপোর্টে পৌঁছোন ৫.১০ থেকে ৫.১২ মিনিটের মধ্যে। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে জানানো হয়, বোর্ডিং গেট অনেক ক্ষণ আগেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে নাকি। তাঁর নাম ঘোষণাও করেছে কর্তৃপক্ষ। ফোনেও যোগাযোগ করেছে।কিন্তু নায়িকার ফোনে পাওয়া যায়নি।

এ দিকে, সঠিক সময়ে শ্যুটিংয়ে না গেলে ফ্লোরে হবে সমস্যা। তার জন্য শুটিং বন্ধ হয়ে যেতে পারে। তিনি ক্রমাগত বিমানবন্দরের কর্মীদের অনুরোধ করতে থাকেন তাঁকে যেতে দেওয়ার জন্য। ঋতুপর্ণার অভিযোগ টানা ৪০ মিনিট ধরে কথা বলার পরেও কেউ বুঝতে পারেনি নায়িকার সমস্যা। শেষে বিমান ধরতে না পারার কষ্টে কেঁদেও ফেলেন তিনি।

এদিকে নায়িকা স্পষ্ট দেখতে পারছেন বিমানে চড়ার সিঁড়ি অবধি রাখা রয়েছে সেখানে। মাত্র ৫০ পা দূরে বিমান রয়েছে অথচ তিনি উঠতে পারছেন না তাতে। বোর্ডিং পাস থেকে শুরু করে সিট নম্বর সব রয়েছে নায়িকার কাছে। সংস্থার পক্ষ থেকে সম্মানসূচক পাসপোর্টও পেয়েছিলেন ঋতুপর্ণা। বেশ কয়েকবার এই সংস্থার বিমানে চড়ে যাতায়াতও করেছেন তবুও কোন সমস্যা হয়নি কোনদিন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button