Tollywood

Prosenjit-Rituparna: এত বড় বড় ছেলে মেয়ে, বর-বৌ সব আছে তবুও আবার চতুর্থ বিয়ের কথা বলছেন প্রসেনজিৎ, তাও ঋতুপর্ণাকে! “কী বাজে বলছো?” রেগে লাল ঋতুপর্ণা

একটা সময় টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে প্রসেনজিৎ এবং ঋতুপর্ণা একে অপরের পরিপূরক ছিলেন। একসঙ্গে প্রচুর হিট সিনেমা দুজনে উপহার দিয়েছেন বাঙালি দর্শকদের। রীতিমতো একটা প্রজন্ম কেটে গিয়েছে তবুও দুজনকে নিয়ে দর্শকদের মধ্যে উন্মাদনা একটুও কম হয়নি। কারণ দুজন চিরসবুজ।

একটা গোটা যুগ ধরে দুজন বিভিন্ন রকমের রোমান্স করা শিখিয়েছেন দর্শকদের। তার সঙ্গে সুপারহিট বিভিন্ন গান। সেই ধারা এখনো অব্যাহত। যদিও এখন কমার্শিয়াল সিনেমা থেকে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় এবং ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত দুজনেই অনেক দূরে। তবু বহু বছর পর একসঙ্গে জুটি বেঁধে যখন প্রাক্তন সিনেমার মধ্যে দিয়ে ফিরে এসেছিলেন পর্দায় সেই ঝলক দেখে হাততালিতে ফেটে পড়েছিল সব সিনেমা হল।

How dare I rate Prosenjit Chatterjee?: Rituparna Sengupta | Bengali Movie News - Times of India

মাঝখানে রোডে গিয়েছিল যে দুজনের মধ্যে তীব্র মন কোষাঘষি হয়েছে যে কারণে মুখ দেখা দেখি পর্যন্ত বন্ধ। তবে বাস্তবে কি হয়েছে সেটা এখন অব্দি স্পষ্ট হয়নি। যদিও একটা দীর্ঘ সময় দুজনকে একসঙ্গে দেখা যায়নি। তবে এখন আবার নতুন করে দুজনকে নিয়ে শুরু হয়েছে আলোচনা। আর এর কারণ হলো প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণার বিয়ে। বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক করতে হবে তাই চারিদিকে হৈচৈ।

Rituparna Sengupta's Love Life: Allegedly Dating Prosenjit Chatterjee To Marrying Sanjay Chakrabarty
বিয়ের তারিখের কথা শুনেই রীতিমত চমকে উঠেছেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। কারণ বাড়িতে বড় বড় ছেলে মেয়ে রয়েছে। যদিও প্রসেনজিৎ আবার চুপ করে থেকে বললেন দুজনের বিয়ের কথা নয় ওই যে ভেতরে যেটা হচ্ছে সেটা। ব্যাস, এখানেই আটকে গেল ভিডিয়ো, বুম্বাদার অসম্পূর্ণ কথা জানতে চান?


‘জাতীয় সিনেমা দিবস’- এ এই বিশেষ ভিডিয়ো প্রকাশ্যে নিজের ভক্তদের মধ্যে আবার আলোড়ন ফেলে দিয়েছেন প্রসেনজিৎ। ক্যাপশনে লেখা- ‘বিয়ের তারিখটা তো ঠিক করতে হবে নাকি?’

চলতি বছর প্রেমদিবসেই প্রকাশ্যে এসেছিল প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণার বিয়ের আমন্ত্রণ পত্র! ‘সবিনয় নিবেদন, মহাশয়/ মহাশয়া, বিগত ৩ দশকেরও বেশি সময় ধরে একসঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করার পরে আমরা নতুনভাবে আপনাদের সামনে আসতে চলেছি। প্রসেনজিৎ ওয়েডস ঋতুপর্ণা। গুরুজনদের আশীর্বাদ আর সবার ভালোবাসা নিয়ে আগামীদিনে পথ চলতে চাই। পাকা দেখা থেকে বিয়ের সব দায়িত্ব সামলাচ্ছেন সম্রাট শর্মা ও তাঁর টিম হাট্টিমাটিম। বিয়ের ঘটকালির দায়িত্বে পল্লবী চট্টোপাধ্যায়। তত্ত্বাবধানে মোহর ও শর্মিষ্ঠা। ডিজিটাল নিমন্ত্রণ পত্রের দ্বারা ত্রুটি মার্জনীয়। বিনীত, বিনীতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ও ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। বিয়ে সম্পর্কিত যে কোনও রকম তথ্যের জন্য কোনওরকম লজ্জা না পেয়ে ফোন করুন মোহর ও শর্মিষ্ঠাকে’- এমনটাই লেখা ছিল সেখানে। আসলে পরিচালক সম্রাট শর্মার আগামী ছবির নাম ‘প্রসেনজিৎ ওয়েডস ঋতুপর্ণা’।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button