Tollywood

ভাঙা ভাঙা ইংরেজি বলেও তোর্সার মুখে ফের ঝামা ঘষে মিঠাই জিতে নিল উইম্যান অফ দ্য ইয়ার পুরস্কার! ভীষণ খুশি মিঠাই ভক্তরা

সুখে-দুখে মিষ্টিমুখে মিঠাই। এই ট্যাগলাইনটা শুনলেই মিঠাইয়ের ভক্তরা আনন্দের জোয়ারে ভেসে যায়। সম্প্রতি হেলদি হেঁশেল কম্পিটিশনে উচ্ছে বাবু সন্দেশ বানিয়ে গোটা বাংলায় সাড়া ফেলে দিয়েছে মিঠাই রানী। ইতিমধ্যে মিষ্টির দোকানেও চলে এসেছে এই মিষ্টি। তবে আগামী দিনে যে প্রোমো দেখানো হয়েছে তাতেই মিঠাই এর জন্য বড় চমক লেখা আছে।

অন্যদিকে আজকের এপিসোডে যা দেখানো হলো তা দেখে আবার খুশি হয়েছেন মিঠাই ভক্তরা। আমরা সকলেই জানি মিঠাই ক্লাস এইট পর্যন্ত পড়েছে তাই তার ইংলিশ জ্ঞান খুব খারাপ। সে ইংলিশ উচ্চারণ করে ভীষণ ভুলভাল। তাকে অনেক বলেও সংশোধন করতে পারেনি উচ্ছেবাবু। কিন্তু এবার এই ভাঙা ইংলিশ দিয়েই সে মন জয় করে নিল দেশের নামীদামী মানুষদের।

এর আগের এপিসোডে আমরা দেখতে পেয়েছি ক্যালকাটা ম্যানেজমেন্ট স্কুলে ওম্যান অফ দ্য ইয়ার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান হচ্ছে। সেখানে জুরি হিসাবে ছিল তোর্সা। মিঠাই কে বিপদে ফেলার জন্য সে কঠিন ইংরেজিতে প্রশ্ন করে মিঠাই কে।মিঠাই প্রথমে কী করবে বুঝতে পারছিল না কিন্তু পরে সে উচ্ছে বাবুর কথা ভেবে একটা পদক্ষেপ নেয়।

আজকের এপিসোডে দেখা গেল ভাঙা ভাঙা ইংলিশ বলে সে নিজের জার্নিটা তুলে ধরল বিচারকদের সামনে। সে বলল, জীবনটা খুব তেঁতো সেই জন্য সে মিষ্টি বানায় যাতে জীবনটা মিষ্টি হয়ে যায়। তার এই কথাটা বিচারকদের ভীষণ ভালো লাগে। তাকেই ফাইনাল ফেলিসিটেশন দেওয়া হয়। মিঠাই তোর্সার মুখে আবার ঝামা ঘষে দেয়।

বিচারকরা এটাই বললেন যে ইংলিশ জানাটা কোন প্রতিভা না। আসল প্রতিভা মানুষের হৃদয়ে থাকে। মিঠাই হয়তো ইংলিশ জানেনা কিন্তু নিজের কাজটা সে খুব ভালো করে করতে পারে। একটা ভাষা জানা অথবা না জানা দিয়ে কারোর যোগ্যতা বিচার করা যায় না।

মিঠাই এই অ্যাওয়ার্ড নেওয়ার সময় তার উচ্ছে বাবুকে স্টেজে ডেকে নেয়। উচ্ছে বাবুর সঙ্গে মিলে অ্যাওয়ার্ড নেয় মিঠাই। আজ এই এপিসোড দেখে ভীষণ খুশি দর্শকরা কিন্তু আগামী দিনের এপিসোড গুলোয় কী হবে সেই নিয়ে চিন্তায় পড়ে গেছেন তারা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button