চৈত্রের চমকে মিঠাইয়ের প্রোমো নাকি কহো‌না পেয়ার হে সিনেমার কপি! প্রোমো প্রকাশ হতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কের ঝড়

জি বাংলায় শুরু হয়েছে চৈত্রের চমক স্পেশাল এপিসোড। ২৮শে মার্চ থেকে ১০ই এপ্রিল পর্যন্ত এখানে কিছু বিশেষ এপিসোড দেখানো হবে সেই উপলক্ষ্যে প্রায় প্রত্যেকটা সিরিয়ালের নতুন প্রোমো এসে গেছে।তবে এতদিন পর্যন্ত দেখা মিলছিল না মিঠাই এর কোন নতুন প্রোমোর, তার জন্য অধৈর্য হয়ে পড়ছিলেন মিঠাই এর ভক্তরা।

গতকাল সন্ধ্যা বেলা প্রথম প্রকাশ্যে আসে মিঠাইয়ের চৈত্রের চমক প্রোমো আর তা দেখে সত্যিই চমকে গেছেন দর্শকরা। দেখানো হয়েছে সিদ্ধার্থ কে লরি ধাক্কা মেরেছে এবং তার গাড়ি পড়ে গেছে জলে। সেই সময় তার ডেড বডি খুঁজে পাওয়া যায়নি তবে পরবর্তীকালে সে রকস্টার হিসেবে ফিরে এসেছে। এখন সে স্মৃতিভ্রষ্ট হয়েছে নাকি তার ব্যবসার যে ক্ষতি করছে তাকে ধরার জন্য ছদ্মবেশ নিয়েছে এ কথা বলা যাচ্ছে না।

কিন্তু প্রোমো আসার পর এই সোশ্যাল মিডিয়ায় যে পরিমাণের ঝড় তুলেছে তা বলার নয়‌। এক এক জনের এক এক রকম ধারণা। কেউ এটাকে পজিটিভ হিসেবে নিচ্ছেন আবার অনেকেই এটাকে নেগেটিভ ধরছেন। ‌কেউ বলছেন যে এবার গল্পের গরু গাছে তুলে দিলেন লেখিকা আবার অনেকেই বলছেন যে যেহেতু চৈত্রের চমক তাই হয়তো চৈত্র মাসের মধ্যেই শেষ হবে এই বিশেষ পর্ব।

তবে বেশ কিছু নেটিজেন কে বলতে দেখা যায় যে এটা নাকি ঋত্বিক রোশনের সিনেমা কহো না পেয়ার হে’র লাইট ভার্সন। আবার অনেকে বলছেন যে এই যে জলে পড়ে গিয়ে ফিরে আসাটা অনেকটা স্টার জলসা সিরিয়াল বোঝেনা সে বোঝেনার অরণ্য কে কৃষ্ণেন্দুর খুন করা, তার জলে পড়া এবং পরবর্তীকালে অরণ্যর ফের ফিরে আসাকে মনে করিয়ে দিচ্ছে।

mithai accident comment

এই নিয়ে মিঠাই ভক্তদের সঙ্গে বোঝেনা সে বোঝেনা সিরিয়ালের দর্শকদের সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝামেলা লেগে গেছে। অনেক মিঠাই ভক্তই প্রোমো দেখে বেশ দুঃখ পেয়েছেন তার আবার বলতে শুরু করেছেন যে তারা আর মিঠাই দেখবেন না। আবার অনেকে বলেছেন যে সুখে দুখে মিষ্টি মুখে মিঠাই বলে তারা দুঃখের সময়ও মিঠাই দেখবেন।

Back to top button