Connect with us

Tollywood

চলতি বছরে একের পর এক বিতর্কে জড়িয়েছেন টলিউডের কন্ট্রোভার্সি কুইন নুসরত জাহান! বছর শেষে ফিরে দেখা যাক সেই বিতর্ক গুলি…

Published

on

বিতর্ক যেন কিছুতেই পিছু ছাড়তে চায় না সাংসদ অভিনেত্রী নুসরত জাহানের। প্রেম থেকে বিয়ে, বিচ্ছেদ থেকে লিভ ইন-তাঁর ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে সর্বদাই চলেছে চর্চা। পার্কস্ট্রিট ধর্ষণকাণ্ডে অভিযুক্ত কাদেরের টলিউডে ফেম পান তিনি। পরবর্তীতে জীবনে আসে নিখিল জৈন। প্রেম থেকে বিদেশে রূপকথার বিয়ে-তবে তার পরেও টিকলো না সেই সম্পর্ক। নিখিলের সঙ্গে বিবাহ-বিচ্ছেদের মধ্যেই যশ দাশগুপ্তের সাথে সম্পর্কে জড়ান তিনি। এরপরই মা হন নুসরত জাহান। বসিরহাটের সাংসদ তথা টলিউড অভিনেত্রী নুসরত জাহান কে নিয়ে বছরভর একটার পর একটা বিতর্ক খবরে উঠে এসেছে। বছর শেষে এক নজরে দেখে নেওয়া যাক বিতর্কিত সেই বিষয় গুলি।

অভিশপ্ত ২০২০ সাল শেষ হওয়ার সাথে সাথেই ২০২১ সালে ঘর ভাঙ্গার গুঞ্জন ছড়িয়ে ছিল টলিপাড়ায়। একদিকে ভাঙ্গন ধরেছিল সংসারে, অপরদিকে সাংসদ অভিনেত্রী নুসরত জাহানের জীবনে নতুন প্রেমের আগমনকে কেন্দ্র করে তখন উত্তাল হয়ে উঠেছিল টলিপাড়া। ২০২০ সালের শেষের দিকে রাজস্থানে ঘুরতে যাওয়ার ছবি থেকেই জল্পনার সূত্রপাত। গোপনে নুসরত জাহান এবং যশ তাদের সম্পর্ক এগিয়ে নিয়ে চলেছেন বলে গুঞ্জন শুরু হয়ে যায় সর্বত্র। ঘনিষ্ঠতা থেকে ছবি পোস্ট সমস্ত কিছুতেই তখন শিরোনামে উঠে আসেন টলিউডের এই পাওয়ার কাপল।

 

এর মধ্যেই বিধানসভা ভোটকে কেন্দ্র করে প্রচারে ব্যস্ত হয়ে পড়েন নুসরত জাহান। এইসময় আছড়ে পড়ে কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউ। এই সময়ই তাঁর অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। অনেকেই ভেবেছিলেন সিঙ্গল মাদার নুসরত জাহান।তবে নানা মুনির নানা মতের মাঝেও একেবারে স্পিকটি নট ছিলেন নুসরত জাহান নিজে।

সেইসময়ে আবারও বিবাহ-বিচ্ছেদের খবরে উত্তাল হয়ে ওঠে টলিপাড়া। নিখিল জৈন বিবাহ বিচ্ছেদের দাবী করেন স্ত্রী নুসরতের কাছে। যশের সাথে প্রেম থেকে শুরু করে নিখিলের সাথে বিবাহ বিচ্ছেদ -সবকিছু মিলিয়ে নির্বাচনের আগেই যেন আঁধার নেমে আসে নুসরত জাহানের জীবনে।

নুসরতের গর্ভাবস্থার বিষয় নিয়ে একাধিক ফোনে বিরক্ত হয়ে নিখিল জৈন। এমনকি নুসরতের গর্ভস্থ সন্তানকে নিজের সন্তান বলে মেনে নিতে নারাজ ছিলেন তিনি। সেকথা সংবাদমাধ্যমে সটান জানিয়ে দিয়েছিলেন নুসরতের প্রাক্তন স্বামী নিখিল জৈন।

বিয়ের দুইবছর পূর্ণ হতে বাকি ছিল বেশকয়েকদিন। রূপকথার বিয়ে থেকে বিচ্ছেদ- নিখিল নুসরতের ব্যক্তিগত জীবন সব সময়ই থেকেছে আলোচনায়। গত ডিসেম্বর মাস থেকেই তাঁরা আলাদা রয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। অষ্টমীর দিন সুরুচি সংঘের পুজোতে অঞ্জলি দিতে এসেছিলেন তাঁরা। তখনই শেষবারের মতো একসাথে দেখা গিয়েছিল তাঁদের।

নিখিল আরও জানান, যেদিন তিনি প্রথম জানতে পারেন তাঁর সঙ্গে না থেকে নুসরত অন্য কারো সাথে থাকতে চান সেদিনই সিভিল স‍্যুট ফাইল করেছিলেন তিনি। নিখিল জৈনের আরও দাবি স্পেশাল ম্যারেজ অ্যাক্টের আওতায় নুসরতকে রেজিস্ট্রি করার অনুরোধ করলেও রেজিস্ট্রেশন করেননি নুসরত।তবে স্বামী-স্ত্রীর মতই জীবন যাপন করেছেন তাঁরা। তাই অ্যানালমেন্টের মাধ্যমে নুসরতের থেকে পুরোপুরি আলাদা হতে চান নিখিল। সেই কারণেই করা হয় এই বিচ্ছেদের মামলা।

তবে নিখিলের সাথে বিয়েকে অবৈধ বলে মানেন নুসরত। স্বামী নন, লিভ ইন পার্টনার বলেই নিখিলকে মনে করেন তিনি। তবে ১৯শে জুন রূপকথার বিয়ের ছবি দেখে হতবাক সকলে। এরপর ডিনার ডেট থেকে শুরু করে রেড রোডের প্রতিমা বিসর্জন সব জায়গায় একসাথে দেখা গেছে তাঁদের। মাথাভর্তি সিঁদুর পরে নিখিলকে স্বামী হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেন তিনি।তাই নিখিল তার স্বামী নন এবং তাঁদের বিবাহ বিচ্ছেদের বিষয় প্রথমেই হজম করতে পারেননি নেটিজেনরা।

তবে এখানেই থামেনি বিতর্ক। লোকসভার বায়ো প্রোফাইলে নিজেকে বিবাহিত জানানোর পাশাপাশি স্বামীর জায়গায় কেন নিখিল জৈনের নাম দিয়েছিলেন সেই নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন। সংসদ ভবনে সাংসদ হিসেবে শপথ বাক্য পাঠ করার সময় নিজেকে নুসরত জাহান রুহি জৈন বলে পরিচয় দেন তিনি। বিষয়গুলিকে কেন্দ্র করে শুরু হয় জলঘোলা। উঠে আসে একের পর এক প্রশ্ন।

তবে ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে খবর, নিখিল জৈন উভকামী। বিষয়টি জানতে পেরে মানসিক যন্ত্রণার মধ্যে দিয়ে যান নুসরত। নিখিলের অনেক বন্ধুরাই নাকি নুসরতের সঙ্গী। তবে এ বিষয়ে সরাসরি প্রশ্ন করলেও বিশেষ কোনো উত্তর দিতে চাননি সাংসদ অভিনেত্রী। এরপর থেকেই ঝামেলার সূত্রপাত দুজনের মধ্যে। বিয়ের কয়েক মাস পরেই ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসে নুসরত জাহানের হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার খবর আসে। শোনা যায় জন্মদিন এর পরেই নাকি ঘুমের ওষুধ খেয়েছিলেন তিনি। নিখিলের জন্মদিনের রাতেই নাকি নিখিল ও তাঁর এক বন্ধুকে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখে ফেলেন তিনি। এমনকি নিখিলের বিবাহিত বন্ধুর স্ত্রীও নাকি তাঁদের ঘনিষ্ঠতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন, শেষমেষ ডিভোর্স হয় তাঁদেরও।

তবে থেমে থাকেননি নিখিলও, প্রথম সারির এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি ইন্ডাস্ট্রির লোকজনের এই ধারণা সম্পূর্ণ ভুল বলে জানিয়ে দেন। একই সাথে নিজের ক্ষোভও উগরে দেন তিনি। তিনি সম্পূর্ণ স্ট্রেট বলে নিজেকে দাবি করেন। টলিউডের অনেকেই লাইম লাইটে থাকতে নিজের মতো করে স্টোরি বানায় বলে জানান তিনি। তাঁর নামে মিথ্যা অপবাদ রটানো হচ্ছে বলে জানান তিনি। মাথার সিঁদুর এবং সন্তানের জন্য একাধিকবার ট্রোলড হয়ে শেষমেষ তার দিকে অভিযোগের আঙুল তোলার চেষ্টা করছে বলে জানান নিখিল জৈন।

তবে একাধিক রূপান্তরকামীদের সাথে নিখিল জৈনের সম্পর্ক রয়েছে বলে জানা গিয়েছে নুসরতের ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে। নুসরত সেই কথা জানার পর থেকেই তাদের সম্পর্কে চিড় ধরে। নিখিল বেশিরভাগ সময়ই নেশাগ্রস্ত থাকতেন বলে জানা গিয়েছে। রাত করে বাড়ি ফিরে নেশার ঘোরে বাথরুমেই নাকি ঘুমিয়ে পড়তেন নিখিল জৈন। এসব মেনে নিতে না পেরেই নাকি নুসরত বিয়ে ভাঙার সিদ্ধান্ত নেন। তবে বিচ্ছেদের এই কাহিনী বর্তমানে অতীত হয়ে গিয়েছে।

যশের সঙ্গে স’হবাস, এর পর ২৬ শে আগস্ট পুত্র সন্তানের জন্ম দেওয়া, সন্তানের বাবার পরিচয়- সব মিলিয়ে আবারও বিতর্ক শুরু হয় টলিউডের কন্ট্রোভার্সি কুইন কে নিয়ে। সন্তানের জন্ম দেওয়ার পর থেকেই যেন প্রেম দ্বিগুণ বেড়েছে নুসরতের। নেই কোনো লুকোছাপা। খুল্লাম খুল্লা রোমান্সের ছবি ধরা পড়ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

এক বছরের মধ্যে সম্পর্কের সমীকরণ পুরোপুরি বদলেছে যশ- নুসরতের। যশের সঙ্গে নাকি এখন নাকি বিয়েটাও সেরে ফেলেছেন নুসরত। যশ দাশগুপ্তের জন্মদিন প্রেম সংসার সন্তান নিয়ে সমস্ত বিষয়ে খোলসা করে জানিয়েছেন সাংসদ অভিনেত্রী।

নেটিজেনদের একাংশ বলেছিল, বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্কের সন্তান ঈশান, সন্তানের পিতৃপরিচয় নিয়েও নেটিজেনদের একহাত নেন তিনি। যশই যে ঈশানের বাবা সন্তানের বার্থ সার্টিফিকেটে তা উল্লেখ করে বিষয়টি পরিষ্কার করে দেন নুসরত জাহান। যশের জন্মদিনের দিন সহবাস সঙ্গীকে স্বামী হিসেবে পরিচয় দিয়ে সকলকে চমকে দেন তিনি।

তবে এতকিছুর মধ্যেও তার সাহসী মনোভাব নজর কেড়েছে অনেকের। সবকিছু সামলে মা হওয়ার পর আবারও কাজে ফিরেছেন তিনি। শুরু করেছেন নতুন ছবির শুটিং। সবকিছু মিলিয়ে ট্রোলারদের বিন্দুমাত্র পাত্তা না দিয়ে খোশ মেজাজে রয়েছেন টলিউড অভিনেত্রী নুসরত জাহান।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Trending