মোহরের জন্য সেরা চিত্রনাট্যকার হিসাবে ‘জাতীয়’ পুরস্কার পেলেন লীনা গাঙ্গুলী!’পর’কীয়া লেখিকা’ বলে ঠুকল নেটপাড়া

আমরা প্রতিদিন যে সিরিয়াল দেখি সেখানে অভিনেতা-অভিনেত্রী যেরকম একটা বড় রোল প্লে করেন সেরকমই কাহিনীর চিত্রনাট্যকার কিন্তু আরও বড় ভূমিকা পালন করেন। সাধারণত চিত্রনাট্যকারের লেখা কাহিনীর ওপরেই বিস্তার হয় সিরিয়ালের। কোন সিরিয়াল হিট করতে গেলে বড় ভূমিকা থেকে যায় সেই সিরিয়ালের চিত্রনাট্যকারের। স্টার জলসার সিরিয়ালের অধিকাংশের চিত্রনাট্যের লিখেন লীনা গাঙ্গুলী। খড়কুটো মোহর শ্রীময়ী সহ বিভিন্ন সিরিয়ালের চিত্রনাট্য ইতিমধ্যেই তিনি অনেক সুনাম অর্জন করেছেন। আবার সিরিয়ালে দেখানো অবাস্তব জিনিসের জন্য তাকে বদনামও হতে হয়েছে।

সম্প্রতি কালার্স টিভি তরফ থেকে বাংলা বিভাগে টেলি অ্যাওয়ার্ডস দেওয়া হয়। এই অ্যাওয়ার্ড এর নাম টেলি অ্যাওয়ার্ডস বাংলা। সেখানেই মোহর এর জন্য সেরা চিত্রনাট্যকার হিসেবে ‘জাতীয়’ পুরস্কার পেলেন লীনা গঙ্গোপাধ্যায় এবং সেইসঙ্গে খড়কুটোর জন্য সেরা সংলাপ লেখিকা হিসাবেও তিনি এই পুরস্কার পেয়েছেন।স্টার জলসার তরফ থেকে এই সুসংবাদ গতকাল শেয়ার করা হয় তবে শেয়ার করতে গিয়ে স্টার জলসা একটু ভুল করে ফেলে। তারা পোস্ট দেয় খড়কুটোর অথচ ছবি দেয় মোহরের।

তবে স্বাভাবিক ভাবেই নেটিজেনরা মোহরের জন্য সেরা চিত্রনাট্যকার হিসেবে লীনা গঙ্গোপাধ্যায় এত বড় প্রেস্টিজিয়াস অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন এটা মানতে পারছেন না।মোহরে শঙ্খের জীবনে একের পর এক নারী আনা হয়েছে এবং তার জেরে টিআরপি তালিকা থেকে একদমই ছিটকে গেছে সিরিয়াল। তাই অনেক নেটিজেন বিশ্বাস করতেই পারছেন না যে মোহরের জন্য লীনা গাঙ্গুলী সেরা চিত্রনাট্যকারের পুরস্কার পেতে পারেন।এই পোষ্টের কমেন্ট বক্সে একজন তো লিখেই দিয়েছেন যে লীনা গাঙ্গুলী হলেন পর’কীয়া রাইটার। একজন লিখেছেন যে তাকে মোহরের জন্য এই অ্যাওয়ার্ডটা দেওয়া অত্যন্ত হাস্যকর। অনেকেই আবার লিখেছেন যে আরেক চিত্রনাট্যকার সাহানা দত্ত এই পুরস্কারের যোগ্য ছিলেন। সবমিলিয়ে নেটিজেনরা যে লীনা গাঙ্গুলীর পুরস্কার প্রাপ্তি তে খুশি নন সে কথা এই পোস্টের কমেন্ট বক্স দেখলেই স্পষ্ট হবে।

Best Writer1 Best Writer

Back to top button