Tollywood

Ankita Chakraborty: জনপ্রিয় ইষ্টিকুটুমের কমলিকা আজ কোথায়? ‘টলিউড কাজ দিয়েও কেড়ে নিয়েছে, এখানে বাবু-বেবি করতে হয়’, বিস্ফোরক মন্তব্য অভিনেত্রী অঙ্কিতা চক্রবর্তীর, দেখুন ভিডিও

টেলিভিশন মানেই অভিনেত্রী অঙ্কিতা চক্রবর্তীর ধামাকেদার কাজ। শুধু ছোট পর্দা নয় বড় পর্দা তেও নিজেকে একই ভাবে প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছেন এই বাঙালি অভিনেত্রী অঙ্কিতা চক্রবর্তী। অঙ্কিতা চক্রবর্তী মানেই বড়পর্দায় বা ছোট পর্দায় বলিষ্ঠ কোন চরিত্র।

নায়িকা সম্প্রতি কলার্স বাংলায় শুরু করছেন ধারাবাহিক ইন্দ্রানী। নাম ভূমিকায় এবং মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি। অসমবয়সী এবং অপ্রচলিত প্রেমের গল্প ফুটে উঠবে এই ধারাবাহিকে।

একটি সংবাদ মাধ্যমের সাক্ষাৎকারে নায়িকাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল যে বলা হয় টলিউডে কাজ পেতে গেলে একটু তোষামোদ করতে হয়। তবে নায়িকা বরাবর ঠোঁট কাটা স্বভাবের আর সেই কারণেই কি একের পরের কাজ হাতছাড়া হয়েছে অঙ্কিতার?


অঙ্কিতা উত্তর দিলেন হয়তো সেটাই। কারণ নায়িকা জানালেন নয় নয় করে ১৭ বছর তিনি ইন্ডাস্ট্রিতে রয়েছেন। মাঝখানে কাজের জন্য মুম্বই গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে কোন বাবু বেবি কাজে লাগে না। অঙ্কিতা শুধুমাত্র অডিশনের মধ্যে দিয়ে যে কটা কাজ এখন অবধি সেখানে পেয়েছেন সেগুলো করে দেখিয়েছেন।

এর পরেই নায়িকা বিস্ফোরক অভিযোগ আনলেন টলিউড ইন্ডাস্ট্রির উপর। তিনি বললেন তাঁর শহরের বড় বড় প্রডিউসার বা প্রযোজনা সংস্থা বা পরিচালকরা তাঁকে কখনোই এই সুযোগ করে দেয়নি। এমনকি নায়িকা এও বললেন যে বেশ কিছু চরিত্রে কাস্ট করা হয়ে যাওয়ার পরও তাঁকে হাতছাড়া করতে হয়েছে সেই কাজ। যাঁরা সেই প্রস্তাব দিতেন তাঁরা বলতেন যে অঙ্কিতা নাকি খুব ভালো অভিনেত্রী কিন্তু এই চরিত্র তাঁর জন্য নয়। তাঁকে আরো বেটার কিছু চরিত্র দিতে হবে। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে সেই বেটার অপশন এখনো অবধি তিনি পাননি কারোর থেকে।

নায়িকা এটাও বললেন যে কলকাতার শীর্ষস্থানে থাকা পরিচালক এবং প্রযোজকরা নায়িকাকে তাঁর নিজের নামেই চেনেন। তাঁরাও বলেন যে কি ভাল কাজ করছিস কিন্তু এসভিএফ বা হইচইয়ের মত বড় কাস্টিং সংস্থাগুলি নিজেরাই কখনো ভেবে নেয় ডেট পাওয়া যাবে না নায়িকার বা অন্য কিছু।

তবে সবশেষে তিনি জানিয়েছেন এর জন্য তাঁর ব্যক্তিগত কোন আক্ষেপ নেই। কারণ তিনি কাউকে তোষামোদ করে চলতে পারেন না। তাঁর কাজ পরিচালক কোনো ভালো চরিত্র দিলে সেই চরিত্রটা মন দিয়ে ফুটিয়ে তোলা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button