Entertainment

দেবশ্রী রায়ের সঙ্গে মুখ দেখাদেখি বন্ধ, ঋতুপর্ণার ব্যবহারটা কি ভালো? বাংলা ছবির টপ নায়িকাদের নিয়ে অকপট বীরভূমের সাংসদ শতাব্দী রায়!

আটের দশকের শেষ আর নয়ের দশকের শুরুতে বাংলা ছবির দুনিয়ায় দুই নায়িকার টক্কর ছিল চোখে পড়ার মতো। দুজন হলেন দেবশ্রী রায় এবং শতাব্দী রায়। তবে বাহ্যিক বিভেদ কি প্রভাব ফেলেছিল সম্পর্কে? এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তখনকার টপ নায়িকাদের সঙ্গে নিজের সম্পর্কের কথা জানালেন অভিনেত্রী এবং সাংসদ শতাব্দী রায়।

দেবশ্রীর প্রসঙ্গে জানান, শতাব্দী যখন টলিউডে আসেন সেই সময়ে বেশ নাম করে গিয়েছেন দেবশ্রী। প্রথম সারির নায়িকাদের মধ্যে ছিলেন দেবশ্রী। সম্পর্ক ভালো ছিল না তাঁদের মধ্যে। দেবশ্রীর তরফে নাকি ভালো ব্যবহার পাননি তিনি। শ্রদ্ধাঞ্জলি নামক একটি সিনেমাতেই দুজনে একসঙ্গে কাজ করেছেন। সেই সময় তাঁদের মধ্যে যাতে কোনরকম সমস্যা সৃষ্টি না হয় সেদিকে বিশেষ খেয়াল রাখতেন সহ-অভিনেতা প্রসেনজিৎ। তবে এখন ভালো সম্পর্ক তাঁদের মধ্যে। দেখা হলে দুজনেই কুশল বিনিময় করেন। ভালো-মন্দ শেয়ার করেন একে অপরের সঙ্গে।

ইন্ডাস্ট্রির আরেক দুর্দান্ত অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের সঙ্গে কেমন সম্পর্ক ছিল শতাব্দীর? উত্তরে নায়িকা বলেন মানুষ তৈরি করত গল্প যে তাঁদের মধ্যে রেষারেষি ছিল। ঋতুপর্ণা নাকি শতাব্দীকে একবার বলেছিলেন তিনি যখন সিনেমায় আসেন সেই সময়ে শতাব্দীর পোস্টার দেখতেন। শতাব্দীর প্রতি ঋতুপর্ণার ব্যবহার খুবই ভালো। তবে শতাব্দী পরিচালিত ওম শান্তি ছবিতে কাজ করার সময় দুজনের মধ্যে সমস্যা হয়, এমনটাই শোনা যায়। আসলে ছবির পোস্টারে নাকি রাখি সাওয়ান্তকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়। তবে সেটা নিয়ে দুজনের মুখোমুখি বিবাদ হয়নি। কিন্তু শতাব্দী এটা স্বীকার করেন যে পোস্টারে অত বড় মাপের এক অভিনেত্রীর ছবি ছোট আসায় তাঁর খারাপ লাগতেই পারে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button