Entertainment

Sandy Saha: বিদেশে নাইটি পরে বাঘের খাঁচায় ঢুকে গেলো স্যান্ডি সাহা,বাঘের হালুম ডাকের সামনে নাস্তানাবুদ হলো নাইটি বৌদি! দেখে হাসছেন নেটিজেনরা

প্রায় দিনই কোনও না কোনও কারণে ভাইরাল হতে থাকেন বাংলার জনপ্রিয় কনটেন্ট মেকার স্যান্ডি সাহা। তাই তিনি যাই করেন সেটাই ভাইরাল হয়ে যায়। মাঝে মাঝে তিনি এমন কিছু করে বসেন যেটা সচরাচর আমরা করার কথা ভাবতেই পারি না। আর এখানেই তিনি বাকিদের নজর কেড়ে নিতে পারেন মুহূর্তের মধ্যেই।

নাইটি পরে ব্যাঙ্ককের ওয়াকিং স্ট্রিটে স্যান্ডি সাহা, তাঁর কীর্তি দেখে হতবাক  বারবণিতাদের দল
কখনও নাইটি পরে এয়ারপোর্টে, কখনও গাঙ্গুবাই সেজে কলকাতার বুকে, কখনও আবার মা ফ্লাইওভারে ‘ইউপি বিহার’ নাচ করে জনগণের নজর আকর্ষণ করতে ভালই পারেন। কিন্তু মাঝে মাঝে আবার স্যান্ডি এমন কিছু করে ফেলে যেটা লোকের কাছে বাড়াবাড়ি মনে হয়। ইয়ার্কি হলেও সেটা তখন কটাক্ষের পর্যায়ে চলে যায় স্যান্ডির জন্যে। এবার আবার এমন এক কীর্তি করে বসলেন যে না হেসে থাকতে পারবেন না আপনিও।

বেশ কিছুটা সময় ধরেই স্যান্ডি ব্যস্ত বিদেশ ভ্রমণে। আর এবার তিনি পাটায়া ভ্রমণে গিয়েছেন। থাইল্যান্ডের পাটায়াতে আছেন তিনি খুশির মেজাজে। সেখানেই নাইটি পরে, টাইগার পার্কে গিয়ে বাঘের সঙ্গে ভিডিও বানিয়েছেন তিনি।

হ্যাঁ, এমনটা করার আগে আমরা অনেকেই দুই-চারবার ভাববো। কারণ সেটা বাঘ মামা। কিন্তু সেখানে বাঘেদের জন্য এমন একটি বিশেষ পার্ক রয়েছে যেখানে আপনিও খাঁচার ভিতর ঢুকে যেতে পারেন। বিশ্বাস করুন, বাঘ কোনো ক্ষতি করবে না আপনার।

একদিকে যেখানে বাঘের সঙ্গে মজার ভিডিও করে ভাইরাল স্যান্ডি তেমন বিদেশের মাটিতে বাংলায় কথা বলার জন্য প্রশংসিত হলেন তিনি। আর সেই নাইটি পরে নিজেই নিজেকে বলছেন নাইটি বৌদি। এতে হাসাহাসির রোল পড়ে গেছে নেট দুনিয়ায়।

আর খাঁচার মধ্যে ঢোকার আগে স্যান্ডি ভয়ে সিটিয়ে গিয়েছিলেন। এমনটা হওয়াটাই স্বাভাবিক। এমনকি একটি চার্ট দেখালেন যেখানে শিশু থেকে বয়স্ক সবাই বাঘকে হাতে ধরতে পারে, ছুঁয়ে দেখতে পারে আর তার জন্যে আলাদা আলাদা টাকা দিতে হবে।

ঠিক তারপরেই দেখা গেলো স্যান্ডি বাঘের লেজের কাছে বুকে ভয় নিয়ে বসেছেন। সেখানে বসতেই বাঘ যেই গর্জন করে উঠলেন ওমনি তিনি ছুটে পালিয়ে আসেন। এদিকে কমেন্ট বক্স ভরে গেছে মজার মজার কমেন্টে। কেউ লিখেছেন। “বাঘটাও ভাবছে এ কোথাকার অদ্ভূত প্রাণী” , আবার কেউ লিখলেন নাইটি বৌদি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button