Entertainment

“আমার বাবা একটা ভিনগ্রহের মানুষ” ! ফাদার্স ডে উপলক্ষে রূপঙ্কর বাগচীর দত্তক কন্যার নতুন উপলব্ধি

হু ইজ কেকে ম্যান? একটা মন্তব্য আর তারপরে ছারখার হয়ে গিয়েছিল এই বাঙালি গায়কের কেরিয়ার থেকে শুরু করে সম্মান ব্যক্তিত্ব সবকিছুই। তিনি বলেন জনপ্রিয় বাঙালি গায়ক রূপঙ্কর বাগচী। গায়ক কেকের অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে বিতর্কিত মন্তব্য করার পর কেকের মৃত্যু যেন বুমেরাং হয়ে ফিরে এসেছিল তাঁর কাছে।

কটাক্ষ করতে কোন কসুর রাখেনি নেট দুনিয়া। একের পর এক মন্তব্য, পাল্টা মন্তব্যে ভরে উঠেছিল সোশ্যাল মিডিয়া। তারপর ক্রমে একের পর এক কাজ হাতছাড়া হচ্ছিল রূপঙ্কর বাগচীর। তবে এখন সময় অনেকটাই পেরিয়ে গিয়েছে। আস্তে আস্তে মানুষ ভুলতে বসেছে পুরনো সেসব কথা। এর মধ্যেই মুখ খুললো গায়ক এর কন্যা মহুল বাগচী।

“ফাদার্স ডে” উপলক্ষে রুপঙ্কর বাগচীর কন্যা মহুল বাগচী একটি সাক্ষাৎকারে নিজের বাবাকে নিয়ে প্রথমবার কথা বলল। মহুল জানিয়েছে বাবার ব্যস্ততার কথা, থেকে বড় হওয়া পর্যন্ত বাবার কাছে থেকেও না পাওয়ার যন্ত্রণা।

মহুল বলে সবার কাছেই তাদের বাবা তারকা। কিন্তু মহুল বা তার মায়ের কাছে নয়। ছোট থেকেই নিজের বাবাকে দেখেছে ভীষণ ব্যস্ত থাকতে। সারাদিন গান গায়, অনুষ্ঠান নিয়েই সময় কেটে যায়। কিন্তু তাই বলে এমন নয় যে তার বাবা একজন ভিনগ্রহের মানুষ। এই ভিনগ্রহ শব্দটিকে কেন্দ্র করেই আবার উত্তাল হয়ে উঠল নেট দুনিয়া। শুরু হয়েছে ভীনগ্রহের বলে ট্রোল।

তবে তারপরে মুকুল জানিয়েছে এখন সে বেশিরভাগ সময়েই বাবার সঙ্গে গানের বিষয় নিয়ে আড্ডা দেয়। সে নিয়ে উকুলেলে বাজায় আর নতুন গান তুললে প্রথমেই বাবাকে সেটা শোনায়।

পুরনো সমস্ত বিতর্ক ভুলে রূপঙ্কর আবার স্বাভাবিক হতে শুরু করেছেন। ইতিমধ্যেই আবার একটি অনুষ্ঠান করে ফেলেছেন তিনি। গায়কের কন্যা জানিয়েছে মাঝে কটা দিন অশান্তির মধ্যে কেটেছে তাদের। সেই পরিস্থিতিতে বাবার পাশে থাকার চেষ্টা করেছে মেয়ে মহুল। বাবা শিল্পী, তারকা আর তারকাদেরও যে যন্ত্রণা হয় সেটাই বলেছে মহুল সবশেষে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button