Entertainment

বসিরহাটে কালীমন্দিরে নিজের হাতে খিচুড়ি ভোগ রান্না করলেন সাংসদ নুসরত জাহান! ‘ন্যাকামি দেখে বাঁচি না,খুন্তি নিয়ে ছবি তুললেই ভোগ রান্না হয় না’, নিন্দায় মুখর নেটিজেনরা

টলিউড অভিনেত্রী নুসরত জাহান সোশ্যাল মিডিয়ার একটি সেনসেশনে পরিণত হয়েছেন। তিনি যা করেন তাই খবর হয়ে যায়। সেটা কাজ হোক বা ব্যক্তিগত জীবনের কোনো সিদ্ধান্ত। মুহুর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায় সেই খবর।

এছাড়াও সোশ্যাল মিডিয়ায় যথেষ্ট সক্রিয় নায়িকা। তাই প্রায়ই দিন নায়িকাকে ছবি বা ভিডিও পোস্ট করতে দেখা যায়। সেগুলিও সঙ্গে সঙ্গে ভাইরাল হয়ে যায় নেটিজেনদের মধ্যে। কিছুদিন আগে পোস্টার পড়েছিল যে বসিরহাটের সাংসদ নাকি নিখোঁজ হয়ে গিয়েছেন। এলাকায় দেখা যাচ্ছে না তাঁকে। এই নিয়ে ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।

এরপর হঠাৎই আগমন ঘটে সাংসদের। নিজের জন্মদিন বসিরহাটে সেলিব্রেট করেন তিনি। বসিরহাট কলেজ উন্নয়ন এবং সংস্কারের কাজ তদারকি করে কর্মীদের সঙ্গে সেই দিনটি কাটান। সেই ছবিও আবার ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

এবার আবার ভাইরাল হলেন নায়িকা। তবে এবার কোনও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট নয় বরং নিজের কাজের মাধ্যমে। আর সেই কাজে অভিভূত এলাকাবাসী। শনিবার বসিরহাটে শ্মশান কালী মন্দিরে উপস্থিত হন নুসরত জাহান। সেখানে গিয়ে তিনি এমন কিছু করলেন যার মাধ্যমে মন জিতে নিলেন মানুষের। কী করেছেন তিনি?

বসিরহাটের খোলাপোতা কালী মন্দিরের পুজোয় শামিল হলেন সাংসদ। আসলে এই শ্মশান তৈরীর পর থেকে নানা মুশকিলে পড়েছিল এলাকাবাসীরা। সেই কথা তারা দিদিকে জানাতেই সমস্যার সমাধান হয়ে গেল। তাই দেওয়া হল বড় করে পুজো।

নুসরত যে শুধু পুজোর উদ্বোধন করেছেন তা নয়, একেবারে হাতা-খুন্তি নেড়ে ভোগ রান্না করেছেন তিনি। পরনে অফ হোয়াইট লাল সিল্কের শাড়ি, পরিপাটি করে বাঁধা চুল।

বিশাল কড়াইয়ে খিচুড়ি রান্না করছেন নায়িকা। খুন্তি নাড়াতে নাড়াতেই প্রশ্ন করলেন “পেরেছি?” সঙ্গে সঙ্গে উত্তর “হ্যাঁ দিদি পেরেছেন, ধন্যবাদ”। এরপর টাকিতে একটি সেলফি পয়েন্টের উদ্বোধন করলেন যেখানে লেখা রয়েছে আই লাভ টাকি। বসিরহাটের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র হতে চলেছে এই এলাকাটি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button