Entertainment

এবার পর্দায় আসবে ইন্দিরা গান্ধীর কেচ্ছা! দেশের ইমারজেন্সি পরিস্থিতির জন্মদাত্রীর ভূমিকায় অভিনয় করবেন কঙ্গনা রানাউত, এলো টিজার! ফ্লপ হবে বলছেন নেটিজেনরা

১৯৭৫ সালের ২৫ জুন। দিনটি কোন ভারতবাসী ভুলতে পারবে না। কারণ ওই দিন থেকেই পরবর্তী ২১ মাস দেশ জুড়ে ছিল জরুরীকালীন পরিস্থিতি। কী প্রভাব পড়েছিল জনজীবনে? সাধারণ মানুষের অবস্থা কেমন ছিল তখন? যারা সেই পরিস্থিতি নিজের চোখে দেখেনি এবার তারাই তা পর্দায় সেটা স্পষ্ট দেখতে পারবে।

হ্যাঁ, দেশের ইমারজেন্সি পরিস্থিতি নিয়ে আসছে সিনেমা “ইমারজেন্সি”। শুধু জরুরীকালীন পরিস্থিতি নয়, পর্দায় দেখানো হবে অপারেশন ব্লু স্টার- এর কাহিনীও।

এতক্ষণে বুঝেই গেছেন কার বিষয়ে বলা হচ্ছে। দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী পর্দায় ফুটে উঠবেন। প্রাক্তন ও প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর চরিত্রে অভিনয় করতে চলেছেন বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। মুক্তি পেল ইমারজেন্সি সিনেমার টিজার। সেটি শেয়ার করেছেন কঙ্গনা নিজে। তবে এই সিনেমায় শুধু অভিনেত্রী নয়, পরিচালকের ভূমিকাতেও দেখা যাবে কঙ্গনা রানাউতকে।

নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় সিনেমার একটি টিজার শেয়ার করে অভিনেত্রী ক্যাপশনে লিখেছেন “তাঁকে উপস্থাপন করছি যাঁকে স্যার বলা হতো”। এর মাধ্যমে অভিনেত্রী ঘোষণা করে দিলেন সিনেমার শুটিং শুরু হচ্ছে। ওই টিজারে দেখা গেছে ইন্দিরা গান্ধী এক সহকর্মীকে বলছেন আমেরিকার প্রেসিডেন্টকে বলে দিতে যে তাঁর কার্যালয়ে কেউ তাঁকে ম্যাডাম নয়, বরঞ্চ সকলে তাঁকে স্যার বলে ডাকে।

এর আগে বৃহস্পতিবার সিনেমায় ইন্দিরা গান্ধীর ভূমিকায় অভিনয় করা কঙ্গনা রানাউতের ফার্স্ট লুক প্রকাশ্যে এসেছে। সেই লুক প্রচুর মানুষের প্রশংসা কুড়িয়ে নিয়েছে। মনিকর্নিকার পর এটি কঙ্গনার দ্বিতীয় পরিচালনা।

এই সিনেমায় কঙ্গনার প্রথম লুক প্রকাশ্যে আসার সঙ্গে সঙ্গে দর্শকদের মধ্যে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে। বহু মানুষ প্রশংসা যেমন করেছে তেমনই সমালোচনাও শুরু হয়েছে। একজন লিখেছে “কেউ দেখবেনা। চূড়ান্ত ফ্লপ হবে ছবিটা। একদম গ্যারান্টি”। আবার আরেকজন লিখেছে “প্রোডিউসার, ডিরেকটর, অভিনেত্রী, সবই নিজে। হলে গিয়ে দেখবেও একাই। আরও একটা ডিস্যাস্টার আসছে!” তবে আরেকজন লিখেছে “লাভলী…ইতিহাস জানার অধিকার সব মানুষেরই আছে। যাক বলিউড এতদিনে সাবলম্বী হয়ে উঠছে।”

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button