Mahima Chowdhury: দুবার মিসক্যারেজ! অসুখী দাম্পত্য জীবনই কি বাধা হয়ে দাঁড়ালো মাতৃত্বের পথে? মুখ খুলেছেন এই সুন্দরী নায়িকা

মহিমা চৌধুরী যার প্রকৃত নাম ঋতু চৌধুরী বলিউডের এক জনপ্রিয় অভিনেত্রী। এই বাঙালি তারকা খুব সহজেই বলিউডকে আপন করে নিতে পেরেছিলেন। আর ভালোবাসা পেয়েছেন বাঙালি এবং হিন্দি সিনেমাপ্রেমী দর্শকদের থেকে।

গ্ল্যামার দুনিয়ার তারকাদের বাইরে থেকে দেখলে আমরা মনে করি তাদের জীবনটা একেবারেই রঙিন এবং চকচকে। কিন্তু সত্যিই কি তাই? সত্যিই তাদের জীবনটা একেবারে তাকে তাকে সাজানো? না, মহিমা চৌধুরীর জীবন কাহিনী সেই প্রমাণ দিচ্ছে। হ্যাঁ, নায়িকার জীবনের এমন দুটি অভিজ্ঞতা তিনি একবার শেয়ার করেছিলেন যা শুনলে বা জানলে আপনারা হয়তো চমকে উঠবেন। কিন্তু তার অভিনয় দেখলে কোনদিন মনে হবে না বাস্তবে তার জীবনে এতটা ঝড় বয়ে গেছে।

জীবনে প্রথমবার মা হতে পারা প্রতিটি মেয়েকেই দেয় সম্পূর্ণতার অনুভূতি। এই নায়িকা একবার নয় দুইবার মাতৃত্বের অনুভূতি পেলেও পালন করতে পারেননি। তবে শুধু এটুকুই নয়, শুধু মা হতে গিয়েই ব্যর্থ হননি তিনি। প্রাক্তন স্বামী ববি মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে তার বিয়েও ব্যর্থ হয়েছে। এক সাক্ষাৎকারে মহিমা নিজে স্বীকার করেছেন যে তিনি স্বামীর থেকে বেশি নিজের মায়ের কাছে থাকতে স্বচ্ছন্দ্যবোধ করতেন।

বৈবাহিক জীবনে সুখী না হতে পারাই কি কাল হয়ে দাঁড়ালো মহিমার মাতৃত্বের পথে? আসলে নায়িকা নিজে স্বীকার করেছেন যে স্বামীর সঙ্গে অসুখী দাম্পত্যের প্রভাব পড়েছিল তার উপর। আবার নিজের কঠিন সময়ও পাশে পাননি স্বামীকে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Mahimachaudhry (@mahimachaudhry1)

২০০৬ সালে বিয়ের পর যদিও প্রথম মাতৃত্বের স্বাদ গ্রহণ করতে পেরেছিলেন মহিমা তবে দ্বিতীয় এবং তৃতীয়বার সেই পথে আসে বাধা। নায়িকা হঠাৎ প্রেগন্যান্ট হয়ে পড়েন এবং মিসক্যারেজ হয়। এরপর আরো একবার মাতৃত্বের পথে হাঁটতে গেলেও পরিণতি হয় সেই মিসক্যারেজ। এই সমস্যাগুলির জন্যই তিনি দায়ী করেছেন সেই সময়টাকে যখন তিনি সুখী ছিলেন না।

Back to top button