Connect with us

Bollywood

অবাঙালি ফর্সা অনুষ্কাকে ঝুলন গোস্বামীর চরিত্রে দেখতে নারাজ দর্শক, টিজার সামনে আসতেই শুরু বিতর্ক

Published

on

কয়েকদিন আগেও খবর মিলেছিল যে ঝুলন গোস্বামীর বায়োপিক থেকে সরে এসেছেন অনুষ্কা শর্মা। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালেই ধামাকা দিলেন অভিনেত্রী। শেয়ার করলেন ঝুলন গোস্বামীর বায়োপিক ‘চাকদহ এক্সপ্রেস’-এর টিজার। এই ছবির হাত ধরেই তিন বছর পর অভিনয়ে ফিরছেন অনুষ্কা। ছবির পরিচালনায় প্রসিত রায়।

চাকদহের এক সাধারণ মেয়ের অসাধারণ হয়ে উঠবার লড়াই উঠে আসবে ‘চাকদহ এক্সপ্রেস’-এ। কীভাবে প্রচলিত ধ্যান-ধারণা, প্রতিকূলতা ভেঙে পুরুষতান্ত্রিক সমাজব্যবস্থায় মহিলা ক্রিকেটার হিসাবে কীভাবে জায়গা ছিনিয়ে নিয়েছেন ঝুলন তা উঠে আসবে এই ছবিতে।

২২ গজে বল হাতে ছুটে আসতে দেখা যাবে অনুষ্কাকে। এই দৃশ্য দেখার অপেক্ষা রয়েছে দর্শক। তবে টিজারে তেমন কিছুই চোখে পড়েনি। তবে ভারতীয় দলের নীল জার্সিতে ‘ঝুলন’ অনুষ্কাকে দেখে দ্বিধাবিভক্ত টুইটার।

শীঘ্রই ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্সে মুক্তি পাবে এই ছবি। ছবির টিজার শেয়ার করে অনুষ্কা লেখেন, “এই ছবিটা খুব স্পেশ্যাল, কারণ এটা বলবে আত্মত্যাগের গল্প। মহিলা ক্রিকেট নিয়ে মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি পালটে দিতে পারে এই ছবি। যখন ঝুলন ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্ন দেখেছিল, তখন মেয়েদের জন্য স্পোর্টসের দুনিয়ায় পা রাখাটাই ছিল বড় চ্যালেঞ্জ। এই ছবিতে এমন অনেক গল্প উঠে আসবে যা ঝুলনের জীবনকে, মহিলা ক্রিকেটকে একটা দিশা দেখিয়েছে”।

তিন বছর পর ফের নিজের পছন্দের অভিনেত্রীকে পর্দায় দেখে বেশ উচ্ছ্বসিত অনুষ্কার ভক্তরা। কিন্তু নেটিজেনদের একাংশ ঝুলন গোস্বামীর চরিত্রে অনুষ্কাকে একেবারেই মেনে নিতে রাজি নন।

একজন লিখেছেন, “আমি অনুষ্কাকে ভালোবাসি, তবে উনি এই চরিত্রের জন্য একদম উপযুক্ত নন”। আবার অন্য একজন লেখেন, “বায়োপিক যখন বানাচ্ছেন কম করে একটু ত্বকের রঙটা মিলিয়ে নিতেন। একজন বাঙালি অভিনেত্রীকে এই চরিত্রের জন্য বাছা উচিত ছিল”। এক নেটিজেনের প্রশ্ন, “কোনও শ্যামবর্ণা মেয়েকে কেন নেওয়া হল না এই চরিত্রের জন্য? শ্যামলা মেয়েদের নিয়ে কী সমস্যা এদের বোঝা যায় না”।

অনেকেরই দাবী বলিউডে অনেক বাঙালি অভিনেত্রী রয়েছেন বা টলিউডের কোনও অভিনেত্রীকেও ঝুলন গোস্বামীর চরিত্রে কাস্ট করা যেত। বাঙালির চরিত্রে অভিনয় করতে গেলে স্পষ্ট বাংলা বলাটা খুব জরুরি, তবে টিজারে অনুষ্কার বাংলা উচ্চারণে টান স্পষ্ট। যদিও এখনও পর্যন্ত তাঁকে বল হাতে দেখা যায়নি। এর আগেই সমালোচনা কুড়লেন তিনি। এবার নিজের অভিনয় দিয়ে সকলের মুখ বন্ধ করতে পারেন কী না বিরাট-ঘরনি, এখন সেটাই দেখার।

এদিকে সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের পরবর্তী ছবি ‘সাবাশ মিঠু’-তে ঝুলনের ভূমিকায় দেখা যাবে অভিনেত্রী মুমতাজ সরকারকে। এই কাস্টিং নিয়ে বেশ খুশি দর্শক।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Trending