Bollywood

Indian Idol: রিয়ালিটি শোয়ের মঞ্চে বাঙালি প্রতিযোগীদের সঙ্গে অন্যায়! সব বাঙালিদের বাদ দেওয়া হচ্ছে! ইন্ডিয়ান আইডলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিচ্ছে বাংলার দর্শক

ভারতীয় গানের রিয়ালিটি শো এর মধ্যে সনি টিভির ‘ইন্ডিয়ান আইডল’ দর্শকদের মধ্যে দারুন জনপ্রিয়।
‘ইন্ডিয়ান আইডল’ ২০২২ এর এই নতুন সিজনে এখন জমজমাট হয়ে উঠেছে প্রতিযোগীদের মধ্যে টক্কর নিয়ে। প্রায় প্রত্যেক সপ্তাহতেই এক এক জন করে এলিমিনেট হয়ে যাচ্ছে। এই এলিমিনেশন পর্বেই গত তিন সপ্তাহ ধরে ক্রমশ বাঙালি প্রতিযোগীদের এলিমিনেট করে দেওয়া হচ্ছে। আর যার ফলে রীতিমতো ক্ষেপে উঠেছে বাঙালি দর্শক। তাদের মতে ইচ্ছাকৃতভাবে যোগ্য প্রার্থীদের ছেঁটে ফেলা হচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই নিয়ে নানারকম ক্ষোভ দেখা গেছে দর্শকদের মধ্যে।

দুই সপ্তাহ আগে অল্পের জন্যই এলিমিনেশন থেকে বেঁচে ছিলেন বাংলার মেয়ে অনুষ্কা পাত্র। তবে এই রবিবার শেষ রক্ষা হয়নি। ইন্ডিয়ান আইডলের ট্রফি হাতে নেওয়ার স্বপ্ন তার অধরাই রয়ে গেল। এমনকি সেরা ১০ এর তালিকাতেও জায়গা করতে পারলেন না অনুষ্কা। সঞ্চারী ও প্রীতমের মতো তাকেও সেরা দশের তালিকার আগেই চলে যেতে হল।

নিজের অসাধারণ সংগীত দিয়ে বারবার বিচারক থেকে অতিথি বিচারক এবং দর্শকদের মন জয় করে নিয়েছেন অনুষ্কা। কয়েকদিন আগেই তাকে গাড়িতে শোনা গিয়েছিল ‘পেয়ার হামে কিস মোড় পে’যা শুনে রিতেশ এবং জেনেলিয়া সহ সমস্ত বিচারকরা তার প্রশংসা করেছিল। অনুষ্কা যে এইভাবে এলিমিনেট হয়ে যাবে তা কিছুতেই মানতে পারছে না দর্শকরা।

দর্শকের ভোট না পাওয়ার জন্য বটম থ্রিতে পৌঁছেছিলেন অনুষ্কা। রবিবার সব থেকে কম ভোট পাওয়ার কারণে তাকে ডেঞ্জার জোনে চলে যেতে হয়। অনুষ্কার সাথে ঋষি সিং এবং কাব্য লিয়ামাও ডেঞ্জার জনে ছিল। এই বছরের সবচেয়ে জনপ্রিয় প্রতিযোগী হলেও ঋষি। তিনি বিরাট কোহলিরও প্রিয় গায়ক। সেও যে বটম থ্রিতে আসতে পারে তা কেউই মেনে নিতে পারেনি।


অনুষ্কা শো থেকে বাদ হয়ে যাওয়ার পরে সোশ্যাল মিডিয়াতে তার অনুরাগীদের ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন তিনি হেরে গেলেও তার সফল এখানেই শেষ নয় বরং এখান থেকেই শুরু।তার কথায়, “জার্নি তো সবে শুরু হল। আপনারা এইভাবেই আশীর্বাদ আর ভালবাসা দিতে থাকুন।”

অনুষ্কাকে উদ্দেশ্য করে কেউ লিখলেন, “অসম্ভব তোমার মত একজন সুগায়িকা সেরা ১০-এ জায়গা পাবে না এটা হতে পারে? পুরো স্ক্রিপটেড শো, সবটাই নাটক।” কেউ লিখছেন, “তোমার সঙ্গে অন্যায় হয়েছে। তুমি সেরা দশ এ জায়গা পাওয়ার যোগ্য ছিলে।”

অনুষ্কার ভিডিওতে ভক্তদের ক্ষোভ উপচে পড়তে দেখা গেছে। কমেন্ট দেখে বোঝা গেছে কেউই তার এলিমিনেশন মেনে নিতে পারছেন না। প্রসঙ্গত, যখন এই প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছিল তখন ইন্ডিয়ান আইডলের ১৫ জন প্রতিযোগীর মধ্যে ৭ জন ছিলেন বাঙালি। এখন তাদের মধ্যে টিকে আছে কেবল চারজন, সোনাক্ষী, দেবস্মিতা, বিদিপ্তা এবং সেঁজুতি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button