Bangla Serial

উর্মির থেকেও এখন শুক্লার কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে ভিকি! বিয়ে হয়ে আসা রিনিকে সরকার বাড়িতেই রেখে দিতে চান রাগী আন্টি, ‘এ কেমন মা?’ অবাক চোখে তাকিয়ে রয়েছেন দর্শকরা

জি বাংলার অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক হল আমাদের এই পথ যদি না শেষ হয়। স্লট বদল হওয়ার পরে এই পথের টিআরপি বেড়েছে আর প্রতিপক্ষ আয় তবে সহচরীর টিআরপি কম তাই তাকে বদলে রাত দশটায় দিয়ে দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু আমাদের এই পথ যদি না শেষ হয় এর গল্প নিয়ে অনেক অভিযোগ আছে দর্শকদের।

আজ ভিকি বিয়ে করে বাড়ি নিয়ে আসবে রিনিকে। সেটা দেখে উর্মির আবার কষ্ট শুরু হবে আর সে দাদাকে পাগলের মতো প্রশ্ন করবে হয় আমাকে বেছে নে, নয় তুই রিনিকে বেছে নিবি। কিন্তু তখন ভিকি বলে যে আমি তাহলে রিনিকে নিয়ে চলে যাচ্ছি। তখন রাগী আন্টি উর্মিকে থামতে বলে ভিকিকে বলবে রিনিকে নিয়ে সরকার বাড়িতে থাকতে।

নেটিজেনরা হতবাক।মুমু দিদির বিয়ে দেওয়ার সময় ভিকি নিজে সেখানে ছিল কিন্তু ভিকিকে কেউ শাস্তি দেয়নি। অথচ ভিকি তো ওখানে সব থেকে বড়।রিনি উর্মিকে মেরে ফেলার চেষ্টা করেছিল সেটা জানার পরেও সরকার বাড়ির সকলে কি করে রিনিকে ওই বাড়িতে রাখার পারমিশন দেয়? যে রাগি আন্টি নিজেকে উর্মির মা বলে দাবি করেন সেই মা যখন দেখছেন যে মেয়েকে যে খুন করতে চেয়েছিল সে বাড়িতে এসেছে তাকে তিনি নিজের বাড়িতে রেখে দেবেন? আজ উর্মির থেকে বড় ভিকি হয়ে গেল?

কিছুতেই সমীকরণ মেলাতে পারছেন না নেটিজেনরা। তারা হাতজোড় করে অনুরোধ করছেন যে দয়া করে গল্পটাকে নষ্ট করা বন্ধ করুন।রিনিকে সরকার বাড়িতে এনে তোলার জন্য অন্য যে কোন প্লট ব্যবহার করা যেত কিন্তু এটা জোর জবরদস্তি হচ্ছে। উর্মি এতটা কষ্ট ডিজার্ভ করে না।

একজন নেটিজেন তার ক্ষোভের কথা লিখেছেন ফেসবুকে সেটা আপনাদের কাছে উল্লেখ করা যাক তাহলেই বুঝবেন নেটিজেনরা কীরকম ক্ষেপে রয়েছেন।
‘আচ্ছা ভিকিকে কি সত্যিই এতটা বলদ বানানো ঠিক হচ্ছে! ওর নাকি এত প্রিয় “ব্যাহেনা” উর্মি, তো ভিকি কি এটুকুও জানেনা, উর্মির জীবনে রিনি কতটা বড়ো অভিশাপ,রিনি,উর্মির কতটা ক্ষতি করার চেষ্টা করেছে,ইভেন করেওছে। অথচ এগুলো ভিকি এখনো জানেনা, i mean লেখক জানাতে চাইছেন না.. খুব ভালো কথা! ভিকির মম এর কথায় ভিকি ওনার পেটের শত্রু .. কিন্তু actually ও উর্মির শত্রু হয়ে উঠছে।

আর রাগী আণ্টি ..i mean বর্তমানে উর্মির মা। উনি হয়তো কোনো কারণবশত ই ভিকি আর রিনিকে সরকার বাড়িতে থাকতে বললেন.. যা আগামী এপিসোড এ দেখাবে । কিন্তু উর্মি তো ওনার সন্তান। উনি তো তাই বলেন। কিন্তু যে ,তার সন্তান কে মারার চেষ্টা করেছে ( দীঘায় উর্মিকে ধাক্কা মেরে ফেলে দেওয়ার ঘটনা।যদিও আমরা জানি রিনি intentionally করতে চায়নি,কিন্তু তা তো আর উনি জানেন না!) তার পরেও এমন বিষাক্ত মানুষ কে কোন যুক্তিতে উনি বাড়িতে থাকতে বললেন!! লজিক্যালি দেখতে গেলে এটা কখনোই ঠিক দেখায় না, বোনের শ্বশুর বাড়িতে তার দাদা তার বউ কে নিয়ে উঠেছে। কিন্তু এক্ষেত্রে যা হচ্ছে তা emotionally হচ্ছে … সরকার বাড়ির সবাই হয়তো ব্যাপার টা নিয়ে আপত্তি করেছে, শুধু এই ‘রাগী aunty’ চরিত্রটি ছাড়া । হ্যাঁ এখন আপনার অনেকেই বলবেন এই চরিত্রটির অনেক গভীরতা। উনি যা বলেছেন,সবদিক ভেবেই বলেছেন। হ্যাঁ আমিও এই চরিত্রটিকে যথেষ্ট সম্মান করি। কিন্তু এটা খুব দৃষ্টিকটু লাগছে ।ওনার বাধা দেওয়ার যুক্তি টা কতখানি বুঝতে পারছি না.. আর উর্মি ওর দাদাভাই কে কি বলে দিতে পারছে না! যে রিনি ওর সাথে ঠিক কতটা শত্রুতা করেছে.. যার জন্য সরকার পরিবারের এত উদারমনস্ক সদস্যদের মনের মধ্যেও ওর প্রতি কোনো মায়া নেই।


আর দর্শক একেই রিনির উপর অনেকটা ক্ষেপে আছে। রিনি মুম্বাই থেকে মিস রিটা হয়ে ফেরার পর উর্মিকে পিছন থেকে যে কটা ছুরি মেরেছে, উর্মি একটার ও প্রতিশোধ নিতে পারেনি। Even জানেওনা এটা রিনির কাজ।

তাই লেখক এর কাছে অনুরোধ ,সব ঠিক আছে .. অন্তত ভিকি যেন রিনির অপরাধ গুলো জানতে পারে। ও যে পরিমাণে রিনির প্রেমে অন্ধ হয়ে আছে, ও নিজের বোন কেও ভুল বুঝতে দুবার ভাববে না ।’

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button