Bangla Serial

Guddi: “আমি সুখী না হলে গুড্ডিও সুখী হবে না”! গুড্ডি এবং যুধাজিতের বিয়ে ভাঙার জন্য নতুন ফন্দি আঁটছে শিরিন! অনুজের কী হবে? আসন্ন গল্প এবার হলো ফাঁস

বর্তমানে স্টার জলসায় সম্প্রচারিত হওয়া একটি অত্যন্ত চর্চিত ধারাবাহিক হলেও ‘গুড্ডি’। সোশ্যাল মিডিয়ায় চোখ পড়লেই দেখা যায় এই ধারাবাহিককে নিয়ে চর্চা। কখনো ট্রোল হয় আবার কখনো সমালোচনার মুখে পড়তে দেখা যায়। তবে বর্তমানে লেখিকা একের পর এক গল্পে এনেছেন টুইস্ট আর যার ফলে আরো বেশি চর্চা হতে দেখা যাচ্ছে এই ধারাবাহিকের।

যারা এই ধারাবাহিকের নিয়মিত দর্শক তারা প্রত্যেকে জানেন ধারাবাহিকে এখন গুড্ডি এবং যুধাজিৎ’এর বিয়ের গল্প চলছে। তবে উল্টোদিকে গুড্ডিকে আবার বিয়ের পিঁড়িতে বসতে দেখে রীতিমতো পাগল হয়ে গেছে অনুজ। কিছুদিন আগে দেখা গেছে গুড্ডির শর্ত অনুযায়ী সকলের সামনে নিজের মনের কথাও বলে দিয়েছে অনুজ। কিন্তু সম্পূর্ণ বিষয়টিকে অনুজ এমনভাবে দেখিয়েছে যাতে গুড্ডিকে সকলে দোষী মনে করে।

তারপরে এইসব দেখে গুড্ডির হবু স্বামী যুধাজিৎ যখন তাকে জিজ্ঞাসা করে, যে সে এই বিয়েতে সত্যি সত্যি রাজি কিনা! গুড্ডি তখন সম্মতি জানায়। সেই সঙ্গে এও বলে যে যুধাজিৎ’এর মতো একজন মানুষকে পাওয়ার পর অনুজ এর কাছে তার ফিরে যাওয়ার কোন ইচ্ছাই নেই। এত কিছু হয়ে যাওয়ার পরেও শিরিন একটুও বদলায়নি। এখনো সে অনুজের কোন দোষ দেখতে পারছে না, গুড্ডিকেই দোষী সাব্যস্ত করছে। আর সেই দেখেই এবার হবু স্ত্রীর সম্মান রক্ষা করার জন্য মুখ খোলে যুধাজিৎ। তখন সে শিরিনকে জিজ্ঞাসা করে যে সে কি গুড্ডি এবং অনুজকে কথা বলতে শুনেছে? কিন্তু শিরিন সে কথা শুনে বলে তার কিছু শোনার দরকার নেই, সে সবকিছু জানে।

তখন শিরিন বলে গুড্ডি জোর করেছিল বলেই নাকি অনুজ তার থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য হোস্টেলে চলে গিয়েছিল। আর সেই কথা শুনে অনুজ তখন বলে তাকে কেউ জোর করেনি। উল্টো দিকে যুধাজিৎও গুড্ডিকে বলে সবার সামনে সমস্ত সত্যি কথা বলতে। আর যুধাজিৎ’এর এই কথা শুনে গুড্ডি সকলের সামনে অনুজের মুখোশ খুলে দেয়।

পুরো সত্যিটা শোনার পর যারা গুড্ডিকে অপমান করছিল তারাও চুপ করে যায়। এমনকি পিনাকীও বলে যে অনুজ বাড়ির সম্মান নষ্ট করছে। আর এই সব কিছু ঘটার পর শিরিন ঠিক করে যে সে এবার অনুজকে ছেড়ে চলে যাবে। তবে আগামী পর্বে আবার দেখা যাচ্ছে, যে শিরিন বলছে এরপর আর এই বিয়ে হবে কিনা সেটা দেখো! এবার শুধু দেখার পরবর্তী দিনে গুড্ডি এবং যুধাজিৎ’এর বিয়ে আদেও হয় নাকি ভেঙে যায়! এই টানটার উত্তেজনা নিয়েই দর্শক অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে বসে রয়েছে পরবর্তী পর্ব দেখার জন্য।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button