Bangla Serial

খড়ি এবং ঋদ্ধির বিয়ের ফটো দেখে চমকে গেল ঈশা! তবে কি আজকেই ঈশার হারানো স্মৃতি ফিরে আসবে? ‘গাঁটছড়া’র দমদার পর্ব দেখে উচ্ছ্বসিত দর্শক

বর্তমানে বাংলা টেলিভিশনের একটি জনপ্রিয় ধারাবাহিক হলো স্টার জলসার ‘গাঁটছড়া’। যেখানে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখা যায় অভিনেতা গৌরব চ্যাটার্জী এবং অভিনেত্রী সোলাঙ্কি রায়কে। ধারাবাহিকে খড়ি ঋদ্ধির জুটি দারুন ভাবে জনপ্রিয়তা পেয়েছে দর্শকদের মধ্যে। তবে বর্তমানে ধারাবাহিকের গল্প বেশ কিছুটা পরিবর্তন হয়ে গেছে।

কিছুদিন আগেই দেখা গেছে এক জঙ্গলে ঋদ্ধি এবং খড়ি তাদের বাড়ির অষ্টধাতুর মূর্তি খুঁজতে যায় এবং সেখানে তাদের ওপর গুন্ডারা হামলা করে যার পরে সবাই মনে করতে শুরু করে যে খড়ি মারা গেছে। এই ঘটনার এক বছর পর খড়ির মতো দেখতে আরো একজন আসে,যার নাম ঈশা। তাকে খড়ির মত দেখতে হলেও সে নিজেকে আলাদা বলে দাবি করে। গল্প যত এগোয় ততো জানা যায় খড়ি ‘ডি’ এর চক্রান্তের স্বীকার।

সম্প্রতি একটি পর্বে দেখা গেছে যে রাহুল তাদের বাড়ি বিক্রি করে দিয়েছে ঈশার কাছে এবং তারপরে সে বাড়িতে থাকতে এসে সবকিছু ছুড়ে ফেলে দিতে চেষ্টা করছে। আর উল্টো দিকে ঋদ্ধি চাইছে সে কি ভাবে ঈশাকে সব কিছু মনে করাবে। এই সবের মধ্যেই চলছে একের পর এক নাটকীয় মোড়।

আসন্ন পর্বে দেখা যাবে যে বনি ঋদ্ধিকে বলছে যে সে যে কোন উপায়ে ঈশার আসল পরিচয় খুঁজে বার করবে। সেই সঙ্গে সে ঋদ্ধিকে বলে যে ঈশাকে যেহেতু খড়ির মতো দেখতে, তাই তাকে সিংহ রায়দের বিরুদ্ধে লাগাচ্ছে তাদের কোন শত্রু। সেই মুহূর্তে বনির টিমের লোকেরা তাকে খবর দেয়, যে জঙ্গলে খড়ি হারিয়ে গিয়েছিল সেই জঙ্গলে কিছু একটা ক্লু পাওয়া গেছে যার জন্য তাকে ডাকে।

এরপর ঈশা খড়ি এবং ঋদ্ধির বিয়ের ফটোটা দেখতে পায় এবং সে অবাক হয়ে যায়। তারপরেই ঋদ্ধি ঘরে ঢোকে এবং তাকে জানায় যে কি চমকে উঠলেন! এছাড়া ঋদ্ধি বলে যে আপনি আমার খড়ি আর আমি আপনাকে এটা মনে করাবো। কিন্তু বারবার ঈশা তা অস্বীকার করে। তারপরে ঋদ্ধি বলে যে তাহলে আপনি কেন আমাদের সাত দিন সময় দিলেন? এবং সেদিন যখন গুন্ডারা আমাকে মারতে আসছিল আমাকে কেন বাঁচালেন?


এরপরে দেখা যায় খড়ি সিংহ রায় বাড়িতে রং করানোর জন্য কিছু লোককে ডাকে। এবং তাদেরকে দেখে সিংহ রায়রা অবাক হয়ে যায়। তারপরে ঈশা সিংহরায় দের অফিসে যায় এবং ঋদ্ধির চেয়ারে বসে। তাকে সবাই বারণ করলেও সে সেখানেই বসে থাকে এবং সে সকলকে বলে যে আজ থেকে ঋদ্ধিমান সিংহ রায় আমার পার্সোনাল অ্যাসিস্ট্যান্ট।এটা শুনে ঋদ্ধি খুশি হয়ে যায় তার কারণ তার মনে হতে থাকে যে এবার তার কাছে সত্যিটা ফাঁস করা অনেক বেশি সহজ হবে। এবার শুধু দেখার কত তাড়াতাড়ি ঈশা যে খড়ি সেটা প্রমাণ করতে পারে ঋদ্ধি?

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button