Bangla Serial

Anurager Choya: সূর্যের অজান্তেই তার কোলে মিলন হলো দুই সন্তানের! সোনা-রূপা একসঙ্গে বাবার কাছে! টানটান উত্তেজনার পর্ব আসছে অনুরাগের ছোঁয়ায়

স্টার জলসার এই মুহূর্তে সেরা টিআরপি দেওয়া এবং অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সিরিয়াল হয়ে উঠেছে অনুরাগের ছোঁয়া। পর পর বেশ কিছু সপ্তাহ ধরে বেশ ভালো জায়গায় রয়েছে টপার তালিকায়। জনপ্রিয়তা এবং টিআরপি দুই নিয়ে এই সিরিয়াল কোনদিন সমঝোতা করেনি এবং সেই কারণেই বর্তমানে একেবারে টানটান উত্তেজনা চলছে।

নায়িকা সূর্য-দীপা-কে খুব ভালোবাসেন দর্শক। তার উপরে এখন এসেছে তাদের দুই কন্যা সন্তান সোনা-রূপা। কিন্তু তাদের মা বাবার মধ্যে বেশ কিছুটা দূরত্ব তৈরি হয়েছে যে কারণে দুই সন্তান দুইজনের কাছে আলাদা ভাবে মানুষ হয়েছে। কাজেই এক সন্তান জানেও না যে তার বাবাকে আরেকজন জানে না তার মা কে।

তবে বহুদিন ধরেই একটা জল্পনা ছড়িয়ে গেছে যে খুব তাড়াতাড়ি মিলন হবে স্বামী-স্ত্রীর এবং সেটাও তাদের দুই সন্তানের কারণেই। ফলে শেষমেষ একটা সুখী পরিবারের ছবি তারা দেখতে পাবে এই আশায় বসে রয়েছে দর্শকরা। আজও সূর্য দীপা দুজনেই দুজনকে খুবই মিস করে তাই মনের দিক থেকে একে অপরের প্রতি টান একেবারেই দুর্বল হয়নি।

সম্প্রতি ৮ বছরের লীপ নিয়ে নিয়েছে এই সিরিয়াল। যেখানে দেখানো হয়েছে তাদের দুই সন্তান বড় হয়ে গেছে। স্বভাবে সোনা যতটা শান্ত রূপা ঠিক ততই দস্যি। তাতে একেবারে নাজেহাল হয়ে গেছে তার মা দীপা। অন্যদিকে মা হওয়ার সময় মিশকা সেন শয়তানি করে দীপাকে যে ইনজেকশন দিয়েছিল তার জন্য দিন দিন বেশ অসুস্থ হয়ে পড়ছে সে।

গ্রামে আসা ভালো ডাক্তারবাবুকে মায়ের চিকিৎসার কথা সে জানায়। কাকতালীয় ভাবে দীপার গ্রামেই হেলথ ক্যাম্পে মেয়ে সোনাকে নিয়ে গেছে সূর্য। অজান্তে নিজের বাবাকেই ভালো ডাক্তারবাবু বলছে তারই আরেক সন্তান রূপা।

নতুন একটি ঝলক সামনে এসেছে যেখানে দেখা যায় গ্রামের মন্দিরে মেয়ে সোনাকে নিয়ে পুজোয় বসেছে সূর্য। খোলা মাঠে মেয়ের পিছনে দৌড়ে আসছে দীপা। কিন্তু মায়ের নাগাল থেকে বেরিয়ে রূপা মন্দিরে থাকা সোনার হাত থেকে কলা ছিনিয়ে পালাতে যায়। কিন্তু সে হোঁচট খেয়ে পড়ে যাওয়ার আগে তাকে ধরে নিয়ে নিজের কোলে বসিয়ে নেয় সূর্য। নিজের অজান্তেই দুই মেয়ে আর বাবার মিলন হয়ে গেল। এবার দেখার বিষয় দুই মেয়ের হাত ধরে কিভাবে সামনাসামনি আসে সূর্য এবং দীপা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button