Bangla Serial

চলে এলো এক্কাদোক্কার প্রোমো, সপ্তর্ষি সোনামণিকে দারুণ লাগছে! সেন আর মজুমদার বাড়ি নিয়ে গল্পে আছে দুর্দান্ত টুইস্ট, পাগল হয়ে গেছে নেটিজেনরা

আসবো আসবো করে এসে গেল সোনামণি সাহা আর সপ্তর্ষি বিশ্বাস এর ধারাবাহিকের নতুন প্রোমো। রাতের বেলাতেই সারপ্রাইজটা দিয়ে দিল স্টার জলসা।অনেকেই ভেবেছিলেন নবাব নন্দিনীকে হয়তো আগে আনবে কিন্তু এখন দেখা গেল এক্কাদোক্কাকে আগে এনে ফেলল চ্যানেল কর্তৃপক্ষ।

নতুন এই প্রোমোর ধারাবাহিকের গল্পে রয়েছে মজাদার টুইস্ট। খানিকটা বৌমা একঘরের ফিলিং আছে তবে এখানে লড়াইটা ডাক্তার বনাম ডাক্তারের। প্রথম দেখাতেই সপ্তর্ষি আর সোনামণিকে একসঙ্গে অনেকের ভালো লাগছেনা সিরিয়াল যত এগোবে ততো হয়তো পছন্দ হবে মানুষের। পুরোপুরি মেডিকেল ড্রামা সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে পরিবার। এবার জেনে নেওয়া যাক গল্পটা।

সেনবাড়ির বর্তমান প্রজন্ম পোখরাজ সেন অন্যদিকে মজুমদার বাড়ির বর্তমান প্রজন্ম রাধিকা মজুমদার। বুঝতেই পারছেন এরাই হলেন সপ্তর্ষি এবং সোনামণি। দুই পরিবারের মধ্যে বরাবরের রেষারেষি। দুজনেই মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস ফাইনাল ইয়ার পড়ছে।পোখরাজ এর বাড়ির সকলে চায় রাধিকাকে সে যেন ফাইনালের রেজাল্ট হারিয়ে দেয় আর বাস্তবে সেটা হয়। রাধিকা সেকেন্ড হয়। এরপর দেখা যায় হঠাৎ বৃষ্টিতে রাধিকার মাথার ছাতা উড়ে গেছে আর সামনে ছাতা নিয়ে এসে গেছে সপ্তর্ষি। লড়াইটা এক ছাতার তলাতেই হোক বলে গল্প এগিয়ে যাবে।

তাই বোঝাই যাচ্ছে রেষারেষি থাকলেও প্রেম হয়ে যাবে সপ্তর্ষি এবং সোনামণির। এখানে আকাশ নীল, কেয়ার করি না’র পর আবার মেডিকেল ড্রামা আনছে স্টার জলসা। অনেককেই দেখা যাচ্ছে, সুদীপ মুখার্জি এখানেও সপ্তর্ষির বাবা। ময়না মুখার্জি মা এবং অনুসূয়া মজুমদার ঠাকুমা। বউ কথা কও তে নিখিলের দাদু যিনি সাজতেন তিনি এখানে সপ্তর্ষির দাদু। অন্যদিকে অপরাজিতা ঘোষ দাস সোনামণির দিদি আর চন্দন সেন সোনামণির বাবা। এখন যিনি খড়কুটোতে গুনগুনের মা সাজেন তিনি এখানে সোনামণির মা সেজেছেন।

ইতিমধ্যেই হাজার হাজার ভিউজ লাইক পড়ে গেছে নতুন প্রোমোতে। কেউ পছন্দ করছে আবার কারোর একটুও ভালো লাগেনি। মোহরের গলাটাও অনেকের মেকি লেগেছে। এখন দেখা যাক এই ধারাবাহিকে কখন কোন সময় দেওয়া হয় এবং ঠিক কতটা ভালো ফলাফল করতে পারে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button