Bangla Serial

Shreema bhattacharya: স্বাধীনতা দিবসের দিনে বিকিনি পরে শুভেচ্ছা জানিয়ে ট্রোলিংয়ের শিকার গাঁটছড়ার দ্যুতি! ‘স্বাধীনতা সংগ্রামীরা তো এইসব দেখার জন্যই মৃত্যুবরণ করেছিল’, ভীষণ বিরক্ত হয়েছেন নেট নেটিজেনরা

আজ দেশের 75 তম স্বাধীনতা দিবস, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উদ্যোগে দুদিন ধরেই পালন হচ্ছে আজাদী‌ কা অমৃত মহোৎসব। মানুষের মনে যেন আলাদা উৎসাহ আজকের দিনটা নিয়ে। প্রথমে আজকে সোমবার, অফিস থেকে সপ্তাহের প্রথম দিনেই ছুটি মানুষকে যেন আলাদা আনন্দ দিয়েছে আর তার ওপর স্বাধীনতা দিবস নিয়ে এখনো আবেগ রয়েছে মানুষের তবে কিছু কিছু সময় মানুষ এমন ভুল করে ফেলে যেগুলোকে সমালোচনার মুখোমুখি হতে হয়।

সারাদিন ধরেই আজকে বিনোদন জগতের মানুষরা সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেদের মতো করে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করেছেন। অনেকেই সুন্দর সুন্দর ভিডিও বানিয়ে পোস্ট করেছেন। অনেকে বিভিন্ন জায়গায় পতাকা উত্তোলন করতে গেছেন। আজকে টলিপাড়ার পুরোপুরি ছুটি তাই অনেকেই ঘুরতে বেরিয়ে পড়েছেন আবার অনেকেই বাড়িতে রিলাক্স করছেন।

তবে একটু আগে গাঁটছড়া ধারাবাহিকের দ্যুতি অর্থাৎ শ্রীমা ভট্টাচার্য ইনস্টাগ্রামে এমন কিছু ছবি পোস্ট করেছেন যা দেখে খুব বিরক্ত হয়েছে মানুষ। আমরা সকলেই জানি এখন উড়িষ্যাতে আউটডোর শুটিং করছে এই ধারাবাহিকের গোটা টিম।আর সিংহ রায়ের ভট্টাচার্য পরিবারের ছেলেমেয়েরা বাস্তব জীবনে সুইমিংপুলে কতটা আনন্দ করেছে তার ছবি দেখে দেখে আমরা পাগল হয়ে গেছি।

কিন্তু সেই সুইমিং স্যুট পরা ছবি পোস্ট করে শ্রীমা ভট্টাচার্য ঠিক কী স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা জানালেন তা এখনো বুঝতে পারছেন না অনেকে। তিনি সেই সমস্ত ছবিগুলো পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখেছেন যে, স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা। ভালো থাকুক, শত বাঁধার মধ্যে থেকেও মনের কোণে থাকা ছেলেমানুষী গুলো স্বাধীন হোক রোজ।

বোঝা যাচ্ছে যে তিনি আসলে সুইমিং স্যুট পরার স্বাধীনতাকেই প্রকাশ করতে চেয়েছেন কিন্তু এটা অনেকে ভালো চোখে নেননি। অনেকেই বলছেন যে যে রক্তক্ষয়ী সংগ্রামের মধ্যে দিয়ে এই স্বাধীনতাটা আজ ভারত অর্জন করেছে সেটা সুইমিং সুট পরার স্বাধীনতার জন্য নয়। সীমা ভট্টাচার্য একজন অভিনেত্রী তিনি যা খুশি পরতেই পারেন তাকে কেউ বাঁধা দেবে না। কিন্তু এই রকম পোশাকে আজকে ছবি তিনি দিতেই পারতেন কিন্তু সেখানে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা লেখার কোন দরকার ছিল না। এই নিয়ে দ্বিধা বিভক্ত হয়ে গেছে শ্রীমার ভক্তরা। কেউ বলছেন যে এটা ২০২২ সাল আবার অনেকের মতে, স্বাধীনতা দিবস একটা খুব আবেগের জায়গা ভারতীয়দের কাছে, সেখানে বর্তমান প্রজন্ম সেটাকে হেয় করতেই পারে তবে একটুও যারা প্রবীণ তাদের কাছে এই জিনিসটা শোভনীয় নয়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button