Bangla Serial

‘আমি এবার যাচ্ছি চলে, কোনদিন হয়তো আর আসবো না’, বিষাদের সুর রোহন ভট্টাচার্য ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে! পল্লবীর মত যেন না হয়,প্রার্থনা করছেন নেটিজেনরা

গতকাল সকাল বেলা আমরা এমন একটা খবর পেয়েছি যে কোন কিছু বলার ভাষা নেই।যারা টলিউড ইন্ডাস্ট্রিকে ভালোবাসেন বিশেষ করে টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রিটাকে তাদের কাছে টেলি দুনিয়ার অভিনেতা-অভিনেত্রীরা অনেক কাছের।সোম থেকে রবি তাদের আমরা দেখতে পাই তাই তারা আমাদের অনেক কাছের মানুষ আর ইনস্টাগ্রামে তারা মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ রাখেন।

পল্লবী দের মৃত্যুটা মেনে নিতে পারছেন না কেউই।হাসিখুশি অত্যন্ত প্রাণবন্ত মেয়েটা যে আর নেই সে কথা বিশ্বাস করতে পারছেন না তার সহকর্মীরাই।শনিবার পর্যন্ত যিনি শুটিং করেছেন রবিবার সকালে তিনি আত্মহত্যা করলেন একথা যেন বিশ্বাস করতে কষ্ট হচ্ছে সকলের। এখন একের পর এক তথ্য উঠে আসছে। কোনটা সত্যি আর কোনটা মিথ্যা সেটা বোঝা যাচ্ছে না।

কিন্তু এর মধ্যেই টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রির মানুষদের জীবন নিয়ে উঠে এলো নতুন বিতর্ক। অভিনেতা সায়ক চক্রবর্তীর দাদা সাংবাদিক সব্যসাচী চক্রবর্তী টেলিভিশন দুনিয়ার অন্ধকার দিকটা নিয়ে কিছুক্ষণ আগেই একটি পোস্ট দিয়েছেন যা পড়ে আমরা বুঝতে পারছি যে যা চকচক করে তা সবসময় সোনা হয় না। অভিনেতা অভিনেত্রীদের ইন্ডাস্ট্রির কাজের চাপ তো সহ্য করতেই হয় সেই সঙ্গে সম্পর্কেও অনেক টানাপোড়েন থাকে তার ওপর থাকে সাধারণ মানুষের ট্রোলিং।

আর এর মধ্যেই মানুষ চিন্তায় পড়ে গেল অভিনেতা রোহন ভট্টাচার্যকে নিয়ে।কয়েক সপ্তাহ আগেই সংবাদমাধ্যম ফেটে পড়েছিল একটা খবরের যে রোহন ভট্টাচার্য এবং সৃজলা গুহ’র মধ্যে ব্রেকআপ হয়েছে আর তার কারণ নাকি শন ব্যানার্জি। সেই নিয়ে অনেক জল ঘোলা হয়েছিল।এরপর আমরা সৃজলাকে দেখেছি নিজের পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে আর রোহনকে আমরা জিমে সময় কাটাতে দেখতে পাচ্ছি।কিন্তু রোহন আজকে সকালে ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে এমন কিছু কথা লিখেছেন যা দেখে ভয় পেয়ে গেছেন তার ভক্তরা।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by 💲®️❗🎷🛴🅰️ (@srijlaguha)


‘আমি যাচ্ছি চলে, কোনদিন হয়তো আর আসবো না! তবে যেটুকু নিয়ে গেলাম তার প্রতিদান আমি দিতে পারবো না’, কবি শামসুর রহমানের লেখা এই লাইন দুটি হঠাৎ করে পোস্ট করেছেন রোহন ভট্টাচার্য।আর তাতেই ভয় পেয়ে গেছেন ভক্তরা এবং তারা প্রার্থনা করছেন যে রোহন যেন পল্লবীর মতো কোনো কান্ড ঘটিয়ে না বসেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button