Bangla Serial

Nagpanchami: সাপকে নিয়ে গল্প কিন্তু “দুদিন পর তো শাশুড়ি-বৌমার নাগিন ডান্স হবে কোনও এক বেদে বাবুকে নিয়ে”! প্রোমো আসতেই ফোঁস করে উঠলো নেটিজেন

আবার একবার নতুন ধারাবাহিকের মাধ্যমে ছোট পর্দায় ফিরতে চলেছেন অভিনেত্রী সুস্মিতা দে। প্রসঙ্গত জি বাংলা ধারাবাহিক ‘অপরাজিতা অপু’ এবং স্টার জলসার ‘বৌমা এক ঘর’ ধারাবাহিকে অভিনয় করে অভিনেত্রী দর্শকের কাছে ভালো জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিলেন। কিন্তু দুটো ধারাবাহিকের কোনোটিই বেশি দিন চলে নি।

তবে এবার আবার একটি নতুন ধারাবাহিক ‘পঞ্চমী’ মাধ্যমে তিনি ছোট পর্দায় ফিরতে চলেছেন। প্রসঙ্গত ধারাবাহিকের প্রথম প্রমো দেখে বোঝাই যাচ্ছে যে ধারাবাহিকটি হতে চলেছে অলৌকিক গল্প নিয়ে। যেখানে তাকে সাধারণ মানুষ হিসেবে দেখতে পাবে না দর্শক।


প্রসঙ্গত ধারাবাহিকের প্রথম প্রমোতে দেখা যাচ্ছে যে তুমুল ঝড় বৃষ্টির রাতে এক গর্ভবতী মহিলা এক শিব মন্দিরে এসে উপস্থিত হয়েছেন। সেখানে গর্ভবতী সেই মহিলা পূজারীর কাছে সাহায্য চান। তিনি বলেন, আমার সন্তানের আগমনের আর বেশি দেরি নেই, তাই আপনিই সন্তান প্রসব করান।

এরপর মহাদেবের কৃপায় মন্দিরের পুরোহিতের সাহায্যেই কন্যা সন্তানের জন্ম দেন তিনি। কিন্তু জন্মের পরেই সদ্যজাতকে দেখে রীতিমত চমকে উঠলেন খোদ পূজারী মশাই। কেন? কারণ সদ্যজাত শিশুটির নাভি থেকে সাপ বেরিয়ে আসতে দেখা যাচ্ছে! এই দেখে রীতিমত ভয় পেয়ে যান পুরোহিত মশাই। এরপর বহুবছর পেরিয়ে দেখা যায় বড় হয়ে গিয়েছে সেই সদ্যজাত মেয়েটি। যেহেতু নাগপঞ্চমীর দিনে তাঁর জন্ম তাই তাঁর নাম হয়েছে পঞ্চমী।

অদ্ভুতভাবে সাপেদের ভাষা বুঝতে পারে সে। তাই কাউকে সাপে কামড়ানোর আগেই বুঝতে পেরে যায় পঞ্চমী। বড় গিন্নিমাকে সাপে কাটবে বলে দৌড়ে তাকে বাঁচাতে এসেছে পঞ্চমী। কিন্তু দূর থেকেই তাকে একপ্রকার অপমান করেছে সকলে কারণ তার জন্মপরিচয় যে অজানা। এরপর দেখা যায় সাপের কাছে গিয়ে সাপকে ফিরে যেতে বলতেই ফিরে গেল সাপ।

আর এই প্রমো সামনে আসতেই ধারাবাহিকের গল্পে অদ্ভুত কান্ড কারখানা দেখানো নিয়ে নানা রকম কটাক্ষ শুরু করেছে। প্রথমত এর আগে নানারকম কটাক্ষ হয়েছে যে ধারাবাহিক যে গল্প নিয়ে শুরু হয় পরবর্তীতে সেই গল্প পুরোপুরি পরিবর্তন হয়ে যায়, তাই এই ধারাবাহিক নিয়েও সবাই তাই বলছে।

আর এবার এই ধারাবাহিককে নিয়ে কটাক্ষ করে এক ব্যক্তি লিখেছেন, ‘বিজ্ঞানের পুরো মাথা গিলে খেয়েছেন ছেড়েই দিন তার কথা বলছিলাম নারীর জায়গায় কি সাপ কাটা হলো তারপরে।’ এছাড়াও একজনের মতে, ‘কিছুদিন পর এই গিন্নি মায়ের ছেলের সাথেই পঞ্চমীর বিয়ে হবে, তারপর ঘুরে ফিরে সেই একই গল্পঃ, নিজেকে প্রমাণ আর সাংসারিক কূটকচালি শুরু হবে।’ তো আরেকজনের মতে, ‘দুদিন পরতো নাগ নাগিনী বাদ গিয়ে শ্বাশুড়ী বৌমার নাগিন ড্যান্স হবে কোনো একটা বেদে বাবুকে নিয়ে।’ তবে আসলে কি হবে সেটাই এখন দেখার অপেক্ষা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button