Bangla Serial

এখন আর দেখানো হয়না কিন্তু একসময় স্টার জলসাকে টেনে তুলেছিল শ্রীময়ী! আজ শ্রীময়ীর টেলিকাস্টের তিন বছর পূর্ণ হল, সোশ্যাল মিডিয়ায় আবেগে ভাসছেন শ্রীময়ী ভক্তরা

বছর দুয়েক ধরে সন্ধ্যা সাতটা বাজলেই বাংলার প্রতিটি ঘর থেকে ভেসে আসছে একটা গানের সুর শ্রীময়ী শ্রীময়ী। ধারাবাহিক শেষ হয়ে গেছে গত বছর ডিসেম্বরে কিন্তু এখনো মানুষ ভুলতে পারেনি শ্রীময়ী অনিন্দ্যদা জুন আন্টিকে। এখনো সাম্প্রতিক সম্প্রচারিত বাংলা ধারাবাহিকের ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ খলনায়িকা মানা হয়ে থাকে জুন আন্টিকে যার জনপ্রিয়তা শ্রীময়ীকেও ছাপিয়ে গেছিল।

এক গৃহবধুর তার অত্যাচারী শ্বশুরবাড়ি বিশেষ করে শাশুড়ি এবং বড় ছেলের অত্যাচার,স্বামীর পর’কীয়া এবং সেই পর’কীয়ার মহিলাকে বিয়ে করে বাড়িতে আনা, সেগুলোর সঙ্গে লড়াই করে নিজের জীবনের প্রতিষ্ঠিত হওয়া, সেই বাড়ি থেকে বেরিয়ে এসে নতুন করে জীবন সঙ্গী খুঁজে পাওয়া, সব মিলিয়ে শ্রীময়ী ছিল একটা লড়াই এর নাম। অনেক মহিলা শ্রীময়ী সঙ্গে নিজের জীবনের মিল খুঁজে পেয়েছিলেন হ্যাঁ কিছু সময় অবশ্যই এমন হয়েছে যে গল্পের গতি আস্তে হয়ে গেছে অথবা উল্টোপাল্টা অযৌক্তিক জিনিস দেখানো হয়েছে কিন্তু শ্রীময়ী নিজের জনপ্রিয়তা ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছিল।শেষের দিকে টিআরপির এটিকে জায়গা পেত না ঠিকই কিন্তু প্রথম দিকে টিআরপি লিস্টে প্রথম স্থান দখল করে রেখেছিল এই ধারাবাহিক।

শ্রীময়ী জলসার ভক্তদের কাছে আরও কেন স্পেশাল সেটা একটু জানানো যাক।জলসার অন্ধকারাচ্ছন্ন যুগ থেকে হাত ধরে টেনে উঠিয়েছে শ্রীময়ী।2018-19 সালে কোনো এক অজানা কারণে স্টার জলসার সিরিয়াল গুলোর টিআরপি অজান্তেই কমতে থাকে। কমতে কমতে এমন এক পর্যায়ে চলে আসে যখন জলসার টপার সিরিয়ালের সর্বোচ্চ টিআরপি ছিল 4.0 – 5.0 এর মধ্যে সীমিত। স্থান পেতো 11 এর ওপরে।
এরপর শ্রীময়ীর আগমন ঘটে সন্ধ্যা 7:00 টার স্লটে। আজ থেকে ঠিক তিন বছর আগে 10ই জুন শুরু হল শ্রীময়ী‌। মজার ব্যাপার হলো তখন জি বাংলার একক রাজত্ব ছিলো। পাশাপাশি সন্ধ্যা সাতটায় প্রতিপক্ষ হিসেবে ছিলো প্রায় ছয় মাসের অধিক ধরে টানা শীর্ষ স্থান দখল করে থাকা কৃষ্ণকলি।

শ্রীময়ীর পথ চলা সহজ হবে না জানা ছিল। কিন্তু শ্রীময়ী আমাদের মা কাকিমার বয়সী নারীদের গল্প‌ই ছিল‌, অনেকের জীবনের সঙ্গে মিলে মিশে গিয়েছিল শ্রীময়ীর গল্প।তারা শ্রীময়ীর মধ্যে খুঁজে পায় নিজেদের। আসক্ত হয়ে পড়ে শ্রীময়ীর ওপর । ছেড়ে দেয় অন্য চ্যানেলের অন্য সিরিয়াল দেখা।

অবশেষে ১০০ দিন যুদ্ধের পর শ্রীময়ী কৃষ্ণকলির কাছ থেকে স্লট ছিনিয়ে আনতে সক্ষম হয়।পরে এইভাবেই চলতে থাকে শ্রীময়ীর পথচলা।

2020 এর মাঝামাঝি সময়ে 10.1 নিয়ে বাংলার নম্বর ওয়ান সিরিয়াল হয় শ্রীময়ী।
তারপর চলতে থাকে শ্রীময়ী গৌরবের সাথেই। কিন্তু নতুনদের জায়গা দিতে পুরনোদের যে জায়গা ছাড়তেই হবে‌‌ তাই শ্রীময়ী শেষ হয়ে যায় গতবছর 19শে ডিসেম্বর, জায়গা নেয় গাঁটছড়া।

শ্রীময়ীর অনুকরণে আজ অনেক সিরিয়াল এসেছে, হিন্দিতে শ্রীময়ীর রিমেক অনুপমাও রমরমিয়ে চলে কিন্তু কোনোটাই শ্রীময়ীর সমতুল্য জায়গা দেওয়া যাবে না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button