Bangla Serial

Anurager Choya: এক চুটকিতে ‘১ লক্ষ’ টাকার বাজিমাত! হঠাৎ করেই ১ লক্ষ টাকা পেয়ে গেছেন “দীপা” স্বস্তিকা! এ কী কাণ্ড?

জনপ্রিয় ধারাবাহিক জগদ্ধাত্রীকেও টেক্কা দিয়েছে দীপা-সূর্য জুটি। নতুন বছরে প্রথম স্থান দখল করে নিয়েছে স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘অনুরাগের ছোঁয়া’। স্টার জলসার সাম্প্রতিক সিরিয়াল ‘অনুরাগের ছোঁয়া’ বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে দর্শক মহলে। শুরু থেকেই এই ধারাবাহিকটির কাহিনী বেশ আকর্ষণীয় ছিল দর্শকদের কাছে।

বর্তমানে সিরিয়ালটি নতুন মোর আসতেই ফের প্রিয় হয়ে ওঠে এই ধারাবাহিক। দুই মেয়ে সোনা-রুপা গল্পে এনেছে এক নতুনত্বের ছোঁয়া। তাদের অসাধারণ অভিনয় দর্শককের মন ছুঁয়ে গেছে। আগামী পর্বগুলোতে আরও নতুন নতুন টুইস্ট আনতে চলেছে এই ধারাবাহিক। দর্শক চান তাদের মাঝের সব ভুল বোঝাবুঝি মিটে গিয়ে তারা যেন একসাথে আবার হাসিমুখে আগের মত থাকে।

তবে তেলেগু গল্পের অনুকরণে তৈরী এই ধারাবাহিক আলাদাই গল্প বলছে। সেই গল্প অনুযায়ী, খুব শীঘ্র সূর্য দীপার মিল হওয়ার কথা এবং সোনা-রুপা অনেক বড় হয়ে যাবে। কিন্তু দেখা যাবে সোনার কারণেই দুর্ঘটনায় সূর্য-দীপা মারা যাবে। তেলেগু সিরিয়ালের অনুকরণেই যদি চলে তাহলে মিল হওয়ার পর সূর্য-দিপাকে মেরে ফেলা হবে আর সোনা রুপাকে নিয়ে গল্প এগিয়ে যাবে সম্পূর্ণ নতুন ভাবে।

আপাতত সূর্য এখনও দীপাকে ক্ষমা করেনি বলে দেখা যাচ্ছেb সিরিয়ালে। এদিকে দীপার আর্থিক অবস্থা ভালো নয় আর তাই সূর্যের মা ‘লাবণ্য সেনগুপ্ত’ একটি ফুলের প্রতিযোগিতা রাখে। আর তিনি আশা করেছিলেন দীপা সেই প্রতিযোগিতায় নাম দেবে ও জিতবেও। আর তারপরই দীপার হাতে তুলে দেওয়া হবে এক লক্ষ টাকা। প্রতিযোগিতার শেষে ঠিক তাই হয়। প্রথম প্রাইজ হিসেবে দীপা পেয়ে যায় ‘এক লক্ষ টাকা’।

তবে এই প্রতিযোগিতা খুব সহজ ছিল না দীপার কাছে। কারণ মিশকা দীপার সব কাজ ঠিক প্রতিযোগিতার কিছুক্ষন আগেই নষ্ট করে দেয়। তাই নতুন করে আবার তৈরী করা খুব কঠিন হয়ে যায়। এদিকে দীপা জানতে পারে, লাবণ্য তাঁর জন্যই এটির আয়োজন করেন। দীপা টাকা পেয়ে খুব খুশি হয় কারণ এই টাকা দিয়ে মেয়ে রুপার ভবিষৎ গড়ে উঠবে। অন্যদিকে এই প্রতিযোগিতার ফলে সূর্য আর দীপা ফের মুখোমুখি হয়। এখন সূর্য-দীপা একে ওপরের থেকে মুখ ফেরালেও খুব শীঘ্রই দুজনের মিল হবে বলেই আশা করছেন দর্শকরা। এবার দেখার বিষয় আর কতদিন? আর কিভাবে তা সম্ভব হবে!

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button