Bangla Serial

Swastika Mukherjee: ‘শাহরুখ কলকাতায় এসে নিজের ছবি প্রচারের জন্য নেচে যান,তাতে দোষ নেই! আমার সঙ্গে সেলফি তুলতে হলেও হলে তো আসুন’, মরিয়া হয়ে শ্রীমতীর প্রচার একা হাতে করছেন স্বস্তিকা

সিনেমা হলগুলিতে এখন শ্রীমতির চর্চা। পর্দা শ্রীমতি আর বাস্তবের শ্রীমতি স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় দুজনেরই তুমুল চর্চা এই মুহূর্তে সিনেমা শ্রীমতিকে ঘিরে। সকলে যাতে সিনেমাটি দেখতে আসেন তার জন্য বারবার নানাভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনুরাগীদের জন্য পোস্ট করছেন স্বস্তিকা।

ভক্তদের আকৃষ্ট করতে স্বস্তিকা আবার ‘টোপ’ও দিচ্ছেন দু-একটা। এই নিয়ে কম কথা শুনতে হয়নি অভিনেত্রীকে। আসলে আজকাল দেখা যায় যে সিনেমা চলছে সিনেমার কলাকুশলীরা সিনেমা হলে পৌঁছে যান অনুরাগীদের সঙ্গে সরাসরি কথা বলতে এবং তাদের প্রতিক্রিয়া জেনে নিতে। শ্রীমতি মুক্তি পাওয়ার পর ঠিক এমনটাই করছিলেন অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। শুধু তাই নয় ভক্তদের সঙ্গে তোলা ছবি শেয়ার করছিলেন নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায়।

এই নিয়ে শুরু হয়েছে নতুন বিতর্ক। সেসব ছবিগুলিতে নানা রকম কটাক্ষ করছে মানুষ। এবার তার জবাব দিলেন অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। সোমবার গভীর রাতে নিজের মনের কথা খুলে বললেন নেট নাগরিকদের জন্য।

লিখেছেন, ‘বলিউড তারকারা নিজেদের ছবি প্রচার করতে সারা দেশে ঘুরে বেড়ান। শাহরুখও কলকাতায় এসেছেন প্রায় তাঁর প্রত্যেকটা ছবির প্রচারে। স্টেজে উঠে নাচতেও দেখেছি। আর আমি নিজের শহরটুকুতে ঘুরছি, কারণ এইটুকু জায়গাতেই তাও কিছু প্রেক্ষাগৃহে আমরা এখনও যুদ্ধ করে টিকে আছি। সেখানে যাচ্ছি, তাতে অসুবিধেটা কোথায়? বাংলা সিনেমা দেখতে আসুন, আমার মুখ দেখতে আসুন, সেলফি তোলার লোভে আসুন। এলেই তো হল! জঘন্য একটা সিনেমা হলে দর্শক কি ছেড়ে দিত? বাংলা ছবির মাথায় ছাতা ধরতে বলছি না, আমি আমার নিজের মাথায় ছাতা ধরছি।’

আসলে বর্তমান সময়ে একটা ট্রেন্ড দাঁড়িয়েছে যেখানে বহু কলাকুশলীদেরকে দর্শকদের উদ্দেশ্যে বাংলা সিনেমার পাশে দাঁড়ানোর অনুরোধ করা হচ্ছে। অভিনেত্রী লিখেছেন তিনি কিন্তু এমনটা করতে চান না।

স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় নিজের মাথায় ছাতা ধরার পাশাপাশি বাংলা ইন্ডাস্ট্রির মাথায় ছাতা ধরার চেষ্টা করছেন। যেকোনো বলিউড তারকা ছবি প্রচারে এলে যেভাবে কলকাতার মানুষ মাতামাতি করে সেটাকেই তুলে ধরেছেন তিনি। বলতে চেয়েছেন তিনি নিজের শহরে নিজেই কি নিজের সিনেমার প্রচার করতে পারেন না?

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button