Entertainment

স্কুলে পড়তে পড়তে করেছিলেন প্ল্যানচেট!স্বর্গীয় দিদার আত্মার কাছে নিজের অভিনয় পেশার কথা আগাম জানতে পেরেছিলেন ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়

একাধারে অভিনেতা অন্যদিকে সংগীতশিল্পী। অভিনেতা ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়ের এবং প্রতিবার কথা আমরা অনেকবার দেখেছি এবং শুনেছি। এর পাশাপাশি নায়ক এর আরও একটি বড় গুণ রয়েছে যা শুনলে অনেকেই ভয় কেঁপে উঠবে।

অভিনেতা ভাস্বর চট্টোপাধ্যায় নাকি মৃত মানুষদের সঙ্গে কথা বলতে পারেন। বিদেহী আত্মার কাছ থেকেই নাকি অভিনয়ের পেশার কথা প্রথম জানতে পেরেছিলেন ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়। অবাক হলেন তো? তাহলে পুরোটা পড়তেই হবে।

দিদি নাম্বার ওয়ানে অতিথি হিসেবে এসে নিজের প্ল্যানচেটের অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন এই অভিনেতা। মৃত্যুর পর কী হয় তা নিয়ে বরাবর আগ্রহ ছিল তাঁর। দেহ ত্যাগ করে আত্মা কোথায় যায়, সেই জগতটা কেমন এই সম্পর্কে জানতে ইচ্ছুক ছিলেন তিনি। অনেক ছোট থাকতেই প্ল্যানচেট করতেন অভিনেতা।

দিদি নাম্বার ওয়ানের ওই পর্বে বৃদ্ধাশ্রমের কয়েকজন বাসিন্দাদের সঙ্গে এসেছিলেন ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়। ওই পুরানো ভিডিওটি আবার ভাইরাল হয়েছে।

একবার নিজের দিদাকে ডেকেছিলেন তিনি। সেই ছিল যখন তিনি যখন স্কুলে পড়েন তখন। প্ল্যানচেটের মাধ্যমে নিজের পরলোকগত দিদাকে ডেকে এনে নিজের ভবিষ্যতের কথা জানতে চেয়েছিলেন ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়। বলা হয় আত্মা নাকি ত্রিকাল সম্পর্কে জানে।

অভিনেতা যখন সপ্তম শ্রেণীতে পড়েন সেই সময় তাঁর দিদা মারা যান। দিদার খুব কাছের মানুষ ছিলেন নাতি। অনেক বার প্ল্যানচেটে দিদাকে ডেকে এনেছিলেন অভিনেতা ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়।

তবে নিজের অভিনেতা হওয়ার ব্যাপারে অভিনেতা জানান যে যখন তিনি এটা করেছিলেন সেই সময়ে ভবিষ্যতে কী নিয়ে এগোবেন সেটা জানতেন না অথবা ঠিক করেননি। ভবিষ্যতের পেশার ব্যাপারে দিদাকে লিখে জিজ্ঞাসা করেছিলেন। আবার তাতে উত্তরও এসেছিল। দিদা লিখে দিয়েছিলেন “অভিনেতা”। ঠিক সেটাই হয়েছে। এমনকি দিদা জানিয়েছেন তিনি যেখানে রয়েছেন সেখানে নাকি প্রচুর আলো এবং আনন্দ রয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button