Connect with us

Entertainment

পিরিতি কাঁঠালের আঠা! নিজের প্রেমের প্রমাণ দিতে গোপনাঙ্গে তালা লাগালেন এই যুবক, ছুটতে হলো হাসপাতালে

Published

on

কথায় বলে পিরিতি কাঁঠালের আঠা লাগলে পরে ছাড়ে না। কথাটা যে কতটা সত্যি তা বোধহয় এবার থাইল্যান্ডের এই যুবক হাড়ে হাড়ে বুঝতে পারছেন।প্রেমে পড়লে মানুষ নানা ধরনের পাগলামী করতে থাকে তাই জন্যই বলা হয় যে প্রেমে পাগল মানুষ। তবে পাগলামি যখন সীমা ছাড়িয়ে যায় তখন মানুষ এমন সব কাণ্ড করে বসে যা বলার নয়।

থাইল্যান্ডের এক যুবক এবার ঘটিয়েছেন এমনই এক অসাধারণ ঘটনা।প্রেমিকাকে প্রেমের প্রমাণ দিতে গিয়ে তিনি নিজের গোপনাঙ্গ তালা দিয়ে দিয়েছিলেন চাবি দিয়ে। 48 ঘণ্টা পরেও তালা খুলতে না পারায় তার গোপনাঙ্গ ফুলে যায় এবং যন্ত্রণা শুরু হয়। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়।

জানা গেছে যে দুদিন আগে ওই যুবকের প্রেমিকা তার সঙ্গে ঝগড়া করে বাড়ি ছেড়ে চলে যায়। তিনি তখন প্রেমিকার প্রতি নিজের আনুগত্য প্রকাশ করতে গোপনাঙ্গে তালা লাগিয়ে দেন চাবি দিয়ে। তিনি বোঝাতে চান যে তিনি অন্য কারোর সঙ্গে আর সম্পর্কে লিপ্ত হবেন না। কিন্তু ফল হয় উল্টো। তার গোপনাঙ্গ ফুলে গিয়ে যন্ত্রণা শুরু হয়। ওই যুবকের মা প্রথমে ব্যাপারটি বুঝতে পারেন।

ঘরের পাশ দিয়ে যখন তিনি যাচ্ছিলেন তখন তিনি শুনতে পান যে ছেলে কান্নাকাটি করছে। তারপরে ছেলেকে জিজ্ঞাসা করায় সমস্ত ঘটনা সে মাকে বলে। তারা প্রথমে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার কাছে যায় কিন্তু সেখানে সাহায্য না পাওয়ায় চাবি দিয়ে তালা খুলে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। বর্তমানে সেই যুবক সুস্থ আছেন বলে জানা গিয়েছে।

ওই যুবকের মা জানাচ্ছেন যে ছেলে তার খুবই ভালো। তাকে বিভিন্ন কাজে সাহায্য করে থাকে নিজের ছেলে। ঘটনাটি প্রসঙ্গে ওই যুবকের মা বলেন, “আগের দিন আমার ছেলের বান্ধবী বাড়িতে এসেছিল। পড়াশোনার জন্য সে অন্য জায়গায় চলে যাচ্ছিল। এতে মন খারাপ হয়ে যায় আমার ছেলের। প্রেমের প্রমাণ দিতে প্রেমিকার সামনেই সে নিজের গোপনাঙ্গে তালা লাগিয়ে দেয়।’’

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Trending